ইতালী রঙ্গের দুনিয়া

ইতালির ঐতিহ্যবাহী সাপের মেলা; যে মেলার মূল আকর্ষণ সাপ

ইতালি, ইতিহাস এবং ঐতিহ্যের জন্য বিখ্যাত এক দেশের নাম। দেশটিতে প্রতিবছর মে মাসে বসে ‘সাপের মেলা’। শুনতে অদ্ভূত লাগলেও বার্ষিক এই মেলার আয়োজন হয় নেপলসের স্ট্যাচু অব সেন্ট ডোমেনিকোতে। 

এই সাপের মেলার সূত্রপাতের পেছনে লুকিয়ে আছে একটি গল্প। একাদশ শতাব্দীতে এই ইতালিতে বাস করতো এক ‘সান ডমেনিকো’ নামের এক সাধু। তৎকালীন সময়ে সাপের উপদ্রব খুব বেশি হওয়ায় মানুষজন খুব বিরক্ত ছিল।

কিন্তু লোকমুখে জানা যায় এই সান ডমেনিকোর এক অসাধারণ ক্ষমতা ছিল, আর তা হলো সাপের কামড়ে তার কোনো ক্ষতি হয়না। এই ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে তিনি কৃষকদের ফসলি জমি থেকে অগণিত সাপ অপসারণ করেছিলেন। তার প্রতি সম্মান প্রদর্শন করতেই প্রতিবছর আয়োজিত হয় এই মেলার।

 

তবে এই মেলা উদযাপনের পেছনে আরেক ধরণের মতও আছে। অনেকের মতে রোমান সর্পদেবী ‘আনজিটিয়া’ (Angitia) এর সম্মান প্রদর্শনের উদ্দেশ্যেই এই মেলা বসে প্রতিবছর।

ইতালিতে এই মেলাকে বলা হয় ‘সারপেরি মেলা’(Serperi Festival)। ২০১৯ সালে এসেও এতবছরের ঐতিহ্যের ব্যাতিক্রম ঘটেনি। এবছরের ১লা মে উদযাপিত হয়েছিল এই মেলা।

দেশ বিদেশ থেকে হাজারও মানুষ যোগ দেয় এই ব্যতিক্রমী আয়োজনে। যদিও বেশিরভাগের হাতে-কাঁধে থাকে সাপের ছড়াওছড়ি, তবুও এই মেলা দেখতে আসা মানুষের সংখ্যা নেহাতই কম না।

সাপ থেকে সাপুড়ে, কিংবা সাধারণ মানুষ- সবার জন্যই ইতালির এই মেলা এক অন্য ধরণের উৎসবের আমেজ বয়ে আনে। কয়েক শতাব্দীর ঐতিহ্য বহন করার কৃতিত্ব ইতালি পেতেই পারে, হোক না তা বিষধর সর্পের জন্য!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.