Featured রঙ্গের দুনিয়া সুস্থ থাকুন

৬ ঘন্টা হৃদস্পন্দন বন্ধ থাকার পর বেঁচে ফিরলেন এক নারী!

শেয়ার করুন

ছয় ঘণ্টা ধরে হৃৎদযন্ত্রের স্পন্দন বন্ধ থাকার পর আবার বাঁচিয়ে তোলা সম্ভব হয়েছে এক নারীকে। এমন বিরল এবং বিস্ময়কর ঘটনায় তোলপাড় পুরো বিশ্ব।

৬ ঘন্টা হৃদস্পন্দন বন্ধ থাকার পর জীবিত হয়ে ফেরা সেই নারীর নাম অড্রে স্কুম্যান। স্পেনের বার্সেলোনায় বাস করেন এই নারী।

স্পেনের পাইরেনিস পার্বত্য এলাকায় স্বামীর সাথে ঘুরে বেড়ানোর সময় তীব্র তুষার ঝড়ের কবলে পড়েন তিনি। মারাত্মক হাইপোথারমিয়ায় আক্রান্ত হওয়ার ফলে হাঁটতে-চলতে অসুবিধা হচ্ছিল অড্রের। তখনই তিনি অচেতন হয়ে পড়ে যান।

অচেতন অবস্থায় হৃদযন্ত্র একদম বন্ধ হয়ে যায় এই নারীর। এমন অবস্থায় কোনো হৃৎস্পন্দন না পেয়ে স্বামী রোহানের ধারণা করে নেন তার স্ত্রী মারা গেছেন।

ইমার্জেন্সি সার্ভিসের জন্য  অপেক্ষা করার সময়ও সেই নারীর পালস পাওয়া যাচ্ছিল না।

দুই ঘণ্টা পর উদ্ধারকর্মীরা আসার পর দেখেন অড্রের শরীরের তাপমাত্রা  নেমে গেছে ১৮ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। উদ্ধার কর্মীরা তাকে বার্সেলোনার এক হাসপাতালে নিয়ে যান। তিনি যে বেঁচে আছেন, তার কোনো লক্ষণই পাচ্ছিলেন না তারা।

হাসপাতালের চিকিৎসক এডুয়ার্ড আরগুডো বলেছেন,

পাহাড়ের যে প্রচণ্ড ঠাণ্ডার কারণে অড্রে স্কুম্যান অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন সেটাই হয়তো আবার তার জীবন বাঁচিয়ে দিয়েছে।

বিবৃতিতে তিনি আরও বলেন,

হাসপাতালে আনার পর তাকে দেখে মনে হচ্ছিল তিনি মারা গেছেন।তবে তিনি যেহেতু হাইপোথার্মিয়ায় আক্রান্ত ছিলেন, আমাদের মনে হচ্ছিল অড্রের বেঁচে ওঠার একটা সম্ভাবনা আছে।

আরগুডো আরও বলেন,

অড্রে স্কুম্যান যখন অচেতন হয়ে পড়েছিলেন তখন হাইপোথার্মিয়াই তার শরীর এবং মস্তিষ্ককে রক্ষা করেছিল। যদিও এই হাইপোথার্মিয়া তাকে প্রায় মৃত্যুর দ্বারপ্রান্তে নিয়ে গিয়েছিল।

এই ঘটনাকে বিরল এক ঘটনা বলে আখ্যায়িত করেন এই চিকিৎসক। তবে তুষার ঝড়ের সময় অড্রের মত বিপদে পড়ে প্রাণ হারাতে হয় অনেক মানুষকেই।

  • সুমাইয়া হোসেন লিয়া, প্রবাস কথা, ঢাকা।
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.