Featured রঙ্গের দুনিয়া

সেইন্ট ভ্যালেন্টাইন; ভালবাসার গ্রাম, যেখানে ভালবাসা গাছে ধরে!

শেয়ার করুন

প্যারিস থেকে ২৫০ কি: মি: দুরের একটি অজপাড়াগাঁ, লোকসংখ্যা মাত্র ২৮২ জন। তারপরও এই গ্রামের একমাত্র বেকারী (Boulangerie) এর মালিক-শ্রমিক সবই জাপানী। গ্রামের নাম সেইন্ট ভ্যালেন্টাইন, পাশেই লিখা Le village des amoureux অর্থাৎ প্রেমিক-প্রেমিকাদের গ্রাম। 

ভালবাসা দিবসের কয়েকদিন আগে থেকেই এই গ্রাম একটি আন্তর্জাতিক গ্রামে পরিণত হয়। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে যুগলরা আসে তাদের ভালাবাসাকে পবিত্র করতে, এখানে আসলে নাকি অতীতের ভালবাসার সমস্ত কলন্ক দুর হয়ে যায় এবং ভালবাসা পুর্ণতা অর্জন করে।

ছবি আবুল হাসান

ভালবাসা দিবসের অনুষ্ঠান এখানে সরকারীভাবে পালন করা হয় খুব ঘটা করে। কমিউনের মেয়র প্রেমিক-প্রেমিকাদের পুরস্কার এবং সার্টিফিকেট বিতরণ করে। গীর্জায় ভালবাসা কীর্তণ এবং কপোত-কপোতীদের জন্য প্রার্থনা করা হয়। গ্রামে বিশেষ খাবার, কনসার্ট এবং বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

ছবি আবুল হাসান

এই গ্রামের ভালবাসা পার্কে আছে ভালাবাসার কৃত্রিম গাছ, এই গ্রাম থেকেই পিতলের হার্ট কিনে তাতে যুগলের নাম, জন্মতারিখ খোদাই করে তা এই গাছে ঝুলিয়ে দেয়া যায়, যা ভালবাসার স্মৃতি বহন করবে এমনকি মৃত্যুর পরও। শুধু তাই নয়, বপন করা যায় একটি প্রাকৃতিক গাছ, যার নিচে নেমপ্লেটে লেখা থাকবে কপোত-কপোতীর নাম, বপনের তারিখ ইত্যাদি তথ্য। এই গাছও ভালবাসার স্বাক্ষ্য বহন করবে তার মৃত্যুর দিন পর্যন্ত।

ছবি আবুল হাসান

গ্রামের মেয়র এর অফিস থেকে শুরু করে প্রতিটি রাস্তা, সাইনবোর্ড, দোকান-পাট, পার্ক, অফিস, মিডিয়াথেক (লাইব্রেরীর মাল্টিমিডিয়া ভার্সন) সবকিছুতেই ভালবাসার ছোয়া। এখানে ভালবাসা গাছেও ধরে, গাছে হৃদয়ফল (Heartফল) পাওয়া যায়।

আবুল হাসান, ফ্রান্স 

আরও পড়ুন-  আজ (৯ ফেব্রুয়ারী) ঢাকায় আন্তর্জাতিক মুদ্রার বিনিময় মূল্য

প্রবাসীদের সব খবর জানতে; প্রবাস কথার ফেইসবুক পেইজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.