Featured যুক্তরাষ্ট্র রঙ্গের দুনিয়া

যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে ভয়ংকর সিরিয়াল কিলার; ৯৩ জনকে খুন করেছেন নির্দ্বিধায়

শেয়ার করুন

৪০ বছর ধরে খুন করেছেন কমপক্ষে ৯৩ জনকে, সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে এক সাজাপ্রাপ্ত খুনি স্যামুয়েল লিটল এ কথা স্বীকার করেছেন। এই তথ্য সামনে আসার পর পরই যুক্তরাষ্ট্রের এফবিআই নিশ্চিত করেছে দেশটির ইতিহাসের সবচেয়ে ভয়ংকর ‘সিরিয়াল কিলার’ হলেন স্যামুয়েল।

স্যামুয়েল লিটল নামের ৭৯ বছর বয়সী এই ব্যক্তিকে পুলিশ অন্তত ৫০টি খুনের ঘটনায় জড়িত বলে প্রমাণ পেয়েছেন। তবে এসব খুনের ঘটনা ঘটেছে ১৯৭০ সাল থেকে ২০০৫ সালের মধ্যে। অর্থাৎ প্রায় ৪০ বছর ধরেই তিনি খুন করছেন বিভিন্ন মানুষকে।

তিন মহিলাকে খুনের দায়ে ২০১২ সাল থেকে কারাগারে স্যামুয়েল। তবে শুধু এই ৩ জনকেই নয়, তিনি খুন করেছেন আরও ৯০ জনকে।

এ বিষয়ে পুলিশ কর্মকর্তারা জানান,

স্যামুয়েল লিটল হামলার জন্য বেছে নিতেন মেয়েদের। খুন হয়েছে এমন তালিকায় আছে বিশেষ করে কৃষ্ণাঙ্গ নারীরা। এদের বেশিরভাগই ছিলেন যৌনকর্মী অথবা মাদকাসক্ত।

স্যামুয়েল লিটল

অভিনব পদ্ধতিতে করতেন খুন

এই খুনি স্যামুয়েল লিটলের খুন করার পদ্ধতি ছিল ভিন্ন। তিনি ছিলেন একজন পেশাদার বক্সার। কাউকে খুন করার ক্ষেত্রে তিনি প্রথমে ঘুষি মেরে কাবু করতেন। এরপর শ্বাসরোধ করে হত্যা করতেন। এর ফলে তাদেরকে যে খুন করা হয়েছে, তা প্রথম দেখায় বোঝা যেত না।

এমন অনেক খুনের ঘটনা আপাত দৃষ্টিতে খুন মনে না হওয়ায় এফবিআই কখনো তদন্ত করেই দেখেনি। অনেক হত্যার ঘটনাকে দুর্ঘটনা বা অতিরিক্ত মাদক নেয়ার ফল বলে খারিজ করেও দেয়া হয়েছিল। এমনকি অনেক মৃতদেহ তো খুঁজেই পাওয়া যায়নি।

কি বলছে এফবিআই?

গত সোমবার এক বিবৃতিতে এফবিআই জানিয়েছে,

স্যামুয়েল লিটল যেসব খুনের কথা স্বীকার করেছেন, সেগুলো বিশ্বাসযোগ্য বলেই মনে হচ্ছে।

এফবিআই এর একজন বিশ্লেষক ক্রিস্টি পালাজ্জো বলেন,

“অনেক বছর ধরে স্যামুয়েলের ধারণা ছিল সে কখনো ধরা পড়বে না। কারণ তার খুনের শিকার যারা হচ্ছিল, তাদের খবর কেউ রাখছিল না।”

বেরিয়ে আসছে ভয়ংকর সব তথ্য

এফবিআই চেষ্টা করছে প্রতিটি খুনের প্রমাণ হাজির করে স্যামুয়েলকে পৃথক হত্যা মামলার আওতায় আনতে। সম্প্রতি এফবিআই একটি ভিডিও ক্লিপ প্রকাশ করেছে যেখানে স্যামুয়েল খুনের বর্ণনা দিয়েছে।

তার বর্ণনা করা ৫ টি খুনের একটি হলো একজন অল্প বয়সী তৃতীয় লিংগের নারীকে হত্যার ঘটনা। যার নাম ম্যারিন অথবা ম্যারি অ্যান হতে পারে বলে জানিয়েছে স্যামুয়েল। এই নারীকে ৭০ এর দশকে মায়ামি, ফ্লোরিডায় খুন করা হয়।

শুধু এই খুনের ঘটনাই নয়, বরং আরও ভয়ংকর কিছু খুনের ঘটনা সামনে এসেছে স্যামুয়েল দেওয়ার তথ্যের ভিত্তিতে। একটি আখক্ষেতের পাশে এক ১৯ বছর বয়সী তরুণীকে খুন করে কবর দিয়েছে এই খুনি।

যেসব স্থানে খুন করেছেন স্যামুয়েল

স্যামুয়েলের ভাষ্যমতে,

মাটি অনেক নরম ছিল, যখনি আমি তাকে ধাক্কা দেই তার মাথা চলে যায় গর্তের নিচের দিকে আর শরীর চলে আসে গর্তের মুখে। আমি এভাবেই তাকে মাটিচাপা দেই।

এর থেকেও ভয়ংকর বর্ণনা আছে স্যামুয়েলের খুনের ইতিহাসে। ১৯৯৩ সালে লাস ভেগাসে একটি মোটেলে এক নারীকে খুন করে এই খুনি। এই খুনের পূর্বে মহিলাটির ছেলের সাথে সাক্ষাতও করে স্যামুয়েল, এমনকি করমর্দনও করেছিল সে।

এরপর এই নারীকে খুন করে শহরের শেষ সীমানার একটি ডোবায় ফেলে দেয় খুনি।

এমন অনেক ঘটনাই স্যামুয়েল বর্ণনা করেছে এফবিআই এর কাছে। কিন্তু সঠিক সময়কাল এবং খুন হওয়া নারীদের পরিচয় সঠিকভাবে মনে করতে না পারায় এফবিআই এর তদন্তে বিঘ্ন ঘটছে।

  • সুমাইয়া হোসেন লিয়া, প্রবাস কথা, ঢাকা।
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.