Featured বাংলাদেশ থেকে

ভ্যাট নিবন্ধন আইন; নিবন্ধন ছাড়া ব্যবসা করতে পারবেনা ফেসবুক-গুগল

শেয়ার করুন

এ বছরের আগামী ১ জুলাই থেকে বাস্তবায়িত হবে  নতুন ভ্যাট আইন। এই আয়ন বাস্তবায়ন করা হলে ফেসবুক, টুইটারসহ জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউব ও অনুসন্ধান ইঞ্জিন গুগল ভ্যাট নিবন্ধন ছাড়া বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনা করতে পারবে না।

সেক্ষেত্রে ব্যবসা পরিচালনার জন্য এ কোম্পানিগুলোকে বাংলাদেশে অফিস স্থাপন করতে হবে। তা সম্ভব না হলে তাদের প্রত্যেককে মূসক এজেন্ট নিয়োগ দিতে হবে। এই এজেন্টগুলো ব্যবসা পরিচালনাবাবদ বাংলাদেশ সরকারকে রাজস্ব প্রদান করবে।

এ বিষয় নিয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) ভ্যাট অনলাইন প্রকল্পের, প্রকল্প পরিচালক সৈয়দ মুশফিকুর রহমান জানান,

 ‘ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউব বা গুগলের মতো জনপ্রিয় মাধ্যম থেকে এখন তেমন ভ্যাট পাওয়া যায় না। কারণ এসব প্রতিষ্ঠানের মূসক নিবন্ধন নেই। দেশে তাদের কোন অফিসও নেই। এছাড়া এসব সাইটে অনেক বিজ্ঞাপন দেখা যায়। কিন্তু বিজ্ঞাপন থেকে কি পরিমাণ আয় হয় কিংবা বিজ্ঞাপনের অর্থ কিভাবে পরিশোধ হয় তাও জানা নেই। তবে নতুন আইন অনুযায়ী নিবন্ধন নিয়ে ব্যবসা করতে হবে। আইনের ব্যতয় হলে বাংলাদেশে এসব প্রতিষ্ঠানের সাইট বন্ধ করে দেওয়ার এখতিয়ার আইনে রয়েছে।’

‘মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২’ আইন এর ১৯ ধারা অনুযায়ী ফেসবুক, ইউটিউব, গুগলের মতো প্রতিষ্ঠানকে মূসক নিবন্ধন নিতে হবে। সেক্ষেত্রে বাংলাদেশে নিজস্ব অফিস স্থাপন অথবা মূসক এজেন্ট নিয়োগ দিতে হবে।

নিবন্ধন এসব প্রতিষ্ঠানের নামে হলেও মূসক এজেন্ট ওই প্রতিষ্ঠানের হয়ে ব্যবসা পরিচালনা করবে। তাই বিজ্ঞাপন ও তাদের আয়ের উপর মূসক এবং আয়কর পরিশোধ করতে হবে। আইন অনুযায়ী, নিবন্ধন না নিলে এনবিআর এসব প্রতিষ্ঠানের সাইট বন্ধ করে দেওয়ার জন্য বিটিআরসিকে চিঠি দেবে। তবে এসব প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে অফিস তৈরি করলে মূসকের পাশাপাশি আয়করও আদায় করা যাবে।

নিয়ম অনুযায়ী, ব্যাংকিং চ্যানেলে অর্থাৎ ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে বিজ্ঞাপনের অর্থ পরিশোধ করতে হয়। কিন্তু খুব কম সংখ্যক প্রতিষ্ঠান ক্রেডিট কার্ডে তাদের অর্থ পরিশোধ করে।এদের বেশিরভাগই হুন্ডির মাধ্যমে অর্থ পরিশোধ করে থাকে। যেহেতু ক্রেডিট কার্ডে পরিশোধ করলে সরকার ১৫ শতাংশ ভ্যাট পায়, সে কারণেই এই আইন জোরদার করা হচ্ছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব অনুযায়ী, চলতি অর্থবছরের প্রথম সাত মাসে (জুলাই-জানুয়ারি) পর্যন্ত ফেসবুক, ইউটিউব, গুগলসহ অন্যান্য ডিজিটাল মার্কেটিং থেকে এ কেন্দ্রীয় ব্যাংক প্রায় ৭০ কোটি টাকা আদায় করেছে। এই নিবন্ধন করা হলে টাকার পরিমাণ আরও বাড়বে বলে জানাচ্ছে বিশেষজ্ঞরা।

  • সুমাইয়া হোসেন লিয়া, প্রবাস কথা, ঢাকা।
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.