Featured ইউরোপ এশিয়া মধ্যপ্রাচ্য মালয়েশিয়া যুক্তরাজ্য

করোনার প্রভাবে কর্মহীন হয়ে পড়বে বিশ্বের ২৫ মিলিয়ন মানুষ!

শেয়ার করুন

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া এই করোনা ভাইরাসের কারণে মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়েছে জনজীবন। এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে পুরো বিশ্ব যেন এক যুদ্ধ বিধস্ত দেশে পরিণত হয়েছে।

এশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, ইউরোপ ,আমেরিকাহ বর্তমানে আফ্রিকা মহাদেশেও ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) বলছে, এমন পরিস্থিতে যদি করোনা ভাইরাস আফ্রিকার প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে তাহলে পরিস্থিতি সামাল দিতে কঠিন সমীকরণের মুখোমুখি হতে হবে পুরো বিশ্বকে।শ

অপরদিকে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা (আইএলও) বিশ্বের ১৮৭ টি দেশের ওপর একটি জরিপ চালিয়ে জানিয়েছে, করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্বের ২৫ মিলিয়ন মানুষ তাদের কর্মস্থান হারাতে পারেন। যার মধ্যে উন্নত বিশ্বের দেশগুলোতে চাকরী হারাতে পারেন ৭.৪ মিলিয়ন মানুষ।

২০১৯ সালের এক জরিপে বিশ্বে বেকারত্বের সংখ্যা ছিল ১৮৮ মিলিয়ন। নতুন করে এই বেকারত্বের সংখ্যা সেই জরিপের সাথে যোগ হবে । সেক্ষেত্রে করোনা ভাইরাসের কারণে বেকারত্বের এই পরিসংখ্যান ২০০৮ সালের বিশ্ব অর্থনৈতিক মন্দাকেও হার মানাবে বলেই মত দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

কোভিড-১৯  এর প্রকোপ ছড়িয়েছে এমন দেশগুলো তার নাগরিকদের চলাচলকে সীমাবদ্ধ করতে বাধ্য হয়েছে। কিছু কিছু দেশ ‘লকডাউন’ বাস্তবায়ন করেছে। ফলে উৎপাদন, রপ্তানি ও সেবা খাতে বিশ্বব্যাপী অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ অনেকাংশেই হ্রাস পেয়েছে।

‘আইএলও’ শ্রমবাজারে করোনা ভাইরাসের প্রভাব সম্পর্কে উল্লেখ করেছে যে, কেবলমাত্র ২০২০ সালের প্রথম দুই মাসে চীনের শিল্প প্রতিষ্ঠানের মোট মূল্য সংযোজন ১৩.৫% হ্রাস পেয়েছে।

এ বিষয়ে আইএলওর মহাপরিচালক গাই রাইডার বলেন,

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব এখন আর একটি “বিশ্বব্যাপী স্বাস্থ্য সঙ্কট নয়, এটি একটি বড় শ্রমবাজার এবং অর্থনৈতিক সঙ্কটও বটে।

তিনি আরো বলেন,

২০০৮ সালের বিশ্ব বৈশ্বিক আর্থিক সংকট সমাধানে পুরো বিশ্ব ঐক্যবদ্ধভাবে যে পদক্ষেপ নিয়েছিলো বর্তমানে আমাদের ঠিক একই পথে হাঁটতে হবে।

ইতিমধ্যেই বিশ্বব্যাপী কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলি বিশ্বব্যাপী অর্থনীতিকে সমর্থন ও উদ্দীপনার জন্য জরুরি ব্যবস্থা গ্রহণের অংশ হিসাবে সুদের হার কমিয়ে দিচ্ছে। এছাড়া বিভিন্ন দেশের সরকাররা তাদের শ্রমিক ও ব্যবসায়ীদের করোনা ভাইরাসের প্রভাব থেকে রক্ষা করার জন্য আর্থিক প্যাকেজ চালু করারও ঘোষণা করছে।

  • তাফাজ্জুল তপু, প্রবাস কথা, বার্মিংহাম, যুক্তরাজ্য।
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.