Featured বাংলাদেশ থেকে

বিমান বাংলাদেশ বিশ্বের নিরাপদ এয়ারলাইনসের তালিকায়

শেয়ার করুন

যাত্রীদের নিরাপত্তা দেওয়ার দিক দিয়ে সাত তারকার মধ্যে পাঁচ তারকা পেয়ে বিশ্বের সেফটি এয়ারলাইনস তালিকায় জায়গা করে নিয়েছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। রবিবার (২০ জানুয়ারি) প্রতিষ্ঠানটি এই তথ্য জানিয়েছে। বিশ্বের ৪০৫টি বিমান সংস্থার তথ্য বিশ্লেষণের মাধ্যমে নিরাপদ এয়ারলাইনসের তালিকা তৈরি করেছে এয়ারলাইন রেটিংস।

অস্ট্রেলিয়াভিত্তিক এ প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, বিশ্বের ৪০৫টি বিমান সংস্থার তথ্য ব্যাপকভাবে বিশ্লেষণের মাধ্যমে নিরাপদ এয়ারলাইনসের তালিকা তৈরি করেছে এয়ারলাইন রেটিংস। এক্ষেত্রে সরকারি, বিশ্ব এভিয়েশন গভর্নিং বডি ও এভিয়েশন সংশ্লিষ্ট শীর্ষ সংগঠনগুলোর অডিটসহ ১২টি পৃথক মানদণ্ড ব্যবহার হয়েছে। একইসঙ্গে প্রতিটি এয়ারলাইনের উড়োজাহাজের বয়স ও লাভজনকের হারের সঙ্গে দুর্ঘটনায় পড়া ও গুরুতর ঘটনার রেকর্ড ঘেঁটে দেখার বিষয়টিও বিবেচনা করা হয়েছে।

অন্যদিকে বাংলাদেশের একমাত্র বেসরকারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে এ তালিকায় স্থান পেয়েছে নভোএয়ার। এ প্রতিষ্ঠানটি সাত তারকার মধ্যে তিন তারকা পেয়ে নিরাপদ বিমানের তালিকায় স্থান পেয়েছে।

আইয়াটা অপারেশনাল সেফটি অডিট (আইওএসএ) সনদপ্রাপ্ত হওয়ায় তিন তারকা পেয়েছে বিমান। ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) কালো তালিকাভুক্ত না হওয়া পূর্ণ তারকা পেয়েছে বাংলাদেশের পতাকাবাহী এই বিমান সংস্থা। গত ১০ বছরে দুর্ঘটনা এড়াতে পারায় ও কোনো আরোহীর মৃত্যু না হওয়ায় আরেকটি পূর্ণ তারকা পেয়েছে বিমান।

এছাড়া প্রতিবেশী দেশ ভারতের এয়ার এশিয়া ইন্ডিয়া ও স্পাইস জেট পেয়েছে তিন তারকা, গোএয়ার, ইন্ডিগো, জেট এয়ার, জেট কানেক্ট পেয়েছে ছয় তারকা, পাকিস্তানের এয়ার ব্লু চার তারকা, মায়ানমারের এয়ার কেবিজে চার তারকা ও মায়ারমার এয়ারলাইন ইন্টারন্যাশনাল সাড়ে ছয় তারকা পেয়ে নিরাপদ তালিকায় রয়েছে।

১৯৭২ সালের জানুয়ারিতে প্রতিষ্ঠিত হয় বিমান। বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর উপহার দেওয়া ডিসি-৩ উড়োজাহাজ দিয়ে প্রথম কার্যক্রম শুরু হয়। বিমানের এয়ারলাইন কোড ‘বিজি’। এর উড়োজাহাজগুলো হলো কিউ-৪০০, এ৩১০, ৭৩৭-৮০০ ও ৭৭৭-৩০০ইআর।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.