Featured বাংলাদেশ থেকে

বিমানবন্দরে প্রবাসীকে পুলিশের ঘাড় ধাক্কা, ফেসবুকে নিন্দার ঝড়

শেয়ার করুন

বিমানবন্দরে এক প্রবাসীকে ঘাড় ধাক্কা দেওয়ার ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ ফেসবুকে নিন্দার ঝড় বইছে। গত রবিবার চট্টগ্রাম শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এ ঘটনা ঘটে। তবে  এ ঘটনায় জড়িত এপিবিএন সদস্যদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়েছে শাহ আমানত বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

ভিডিওতে দেখা যায়, একজন যাত্রীর সঙ্গে এপিবিএন সদস্যদের কথা কাটাকাটি হচ্ছে। একপর্যায়ে এক এপিবিএন সদস্য ওই প্রবাসীর ঘাড়ে হাত দিয়ে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। আরেক এপিবিএন সদস্য তার মালপত্র ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দিচ্ছেন।

জানা গেছে, গত রোববার কথা কাটাকাটির জের ধরে এপিবিএন সদস্যরা এক প্রবাসী যাত্রীকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করে দেওয়ার চেষ্টা করেন। ঘটনার পরপরই আশপাশে থাকা বাকি প্রবাসী যাত্রীরা এ ঘটনার প্রতিবাদ করেন এবং ওই ঘটনার ভিডিওচিত্র ফেসবুকে প্রকাশ করেন।

এদিকে এই ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নিন্দার ঝড় তুলেছেন প্রবাসীরা। ওই ভিডিওতে আরশাদ হোসেন নামে এক প্রবাসী তার মন্তব্যে বলেছেন, ‘ওরা শুধু তার গায়ে হাত উঠায়নি, সব প্রবাসীদের গায়ে হাত তুলেছে। আসলে এই দৃশ্যটা দেখার পরে অনেক কষ্ট হয়েছে, আমাদের প্রবাস জীবন মনে হয় কুকুরের চেয়েও খারাপ হয়ে গেছে।’

শফিকুল আলম নামে এক প্রবাসী মন্তব্যে বলেছেন, এ কোন দেশে আমরা বাস করি? আমরা যারা প্রবাসী, দেশে গেলে নুন্যতম সম্মানটুকু করেনা এয়ারপোর্টে দায়িত্বে থাকা কিছু প্রশাসনের লোক। অথচ বিদেশে কত সম্মান করে। তবে এদের আগে প্রশিক্ষণ দেয়া উচিৎ, কিভাবে যাএীদের সাথে আচরণ করবে। এই ভিডিও দেখে মনে হচ্ছে ওদের বেতনের চাকরী আমরা বিদেশে করেছি, উনারা আমাদের বেতন দিতেন। উনাদের আচরনে এমনই  মনে হয়, খুব দুঃখজনক।

শাহ আমানত বিমানবন্দরের ব্যবস্থাপক উইং কমান্ডার সারোয়ার-ই-জামান গণমাধ্যমকে জানান, ভিডিওটি আমরা সংগ্রহ করছি। অভিযুক্ত এপিবিএনের সদস্যের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

  • প্রবাস কথা ডেস্ক

গত 24/11/2019 তারিখে চট্টগ্রাম শাহ আমানত বিমান বন্দরে এক প্রাবাসি ভাই কে নাজাহাল এর আবস্তা দেখুন।

Posted by Mohammad Hanif Manik PAGE on Monday, November 25, 2019

 

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.