Featured বাংলাদেশ থেকে

বিদেশগামী কর্মীদের বীমা সুবিধা বাধ্যতামূলক করছে সরকার

ভাগ্য বদলের আশায় প্রতিবছর বিদেশে পাড়ি জমায় কয়েক লাখ বাংলাদেশী। তাদের অনেকেই শিকার হন নানা দুর্ঘটনার, এমনকি মারাও যান কেউ কেউ, আর তাতে চরম ঝুঁকিতে পড়ে  তাদের পরিবার।

এসব পরিবারের নিশ্চয়তা দিতে বীমার আওতায় আনা হচ্ছে বিদেশগামী কর্মীদের। এজন্য নীতিমালা চূড়ান্ত করেছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

বীমা সুবিধা- ১ ( বাধ্যতামূলক )

কর্মীর বয়স-  ১৮-৫৮ বছর

বিমার মেয়াদ- ২ বছর

বিমার অংক-  ২ লাখ টাকা

প্রিমিয়াম-     ৯৯০ টাকা

সরকার-      ৫০০ টাকা

কর্মী-        ৪৯০ টাকা

বাধ্যতামূলক বীমার আওতায় বিদেশে যাওয়ার আগে কর্মীকে ৯৯০টাকা জমা দিতে হবে, যার মধ্যে মন্ত্রণালয় দিবে ৫০০ টাকা, বাকি টাকা দিতে হবে কর্মীকে। দুই বছরের মধ্যে অঙ্গ বা জীবনহানি হলে ২ লাখ টাকা পাবে প্রবাসী কর্মী বা তাঁর পরিবার।

বীমা সুবিধা- ২ ( ঐচ্ছিক )

কর্মীর বয়স-  ১৮-৫৮ বছর

বিমার মেয়াদ- ২ বছর

বিমার অংক-  ৫ লাখ টাকা

প্রিমিয়াম-     ২,৪৭৫৮ টাকা

সরকার-      ৫০০ টাকা

কর্মী- ১,৯৭৫ টাকা

ঐচ্ছিক বীমার আওতায় যারা, তাদের ৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ পেতে প্রিমিয়াম দিতে হবে ২৪৭৫ টাকা। এক্ষেত্রেও সরকার দেবে ৫০০ টাকা।

চলতি মাসেই এর কার্যক্রম শুরু হবে বলে জানা গেছে। প্রবাসীদের বীমা সুবিধায় আনার বিষয়টিকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছেন বিশ্লেষকরা। তবে এটি যেন সঠিক নিয়মে হয় এবং প্রবাসী কর্মীরা আসলেই ক্ষতিপূরণ পায় তা নিশ্চিত করার পরামর্শ তাদের।

প্রবাসী কর্মীদের বীমা সুবিধা দিচ্ছে জীবন বিমা কর্পোরেশন। প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী সংবাদমাধ্যমকে জানান, কোন ধরনের জটিলতা ছাড়াই বীমা দাবি পরিশোধ করা হবে। আর বছর শেষে বিষয়টি পুনর্মূল্যায়ন করা হবে বলে জানিয়েছেন  প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ।

বীমা সুবিধা চালু হলেও, প্রবাসী কর্মীদের বিদ্যামান সব সুবিধা চালু থাকবে বলে জানিয়েছে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়।

  • প্রবাস কথা ডেস্ক 

আরও পড়ুন- বাংলাদেশীদের জন্য খুলছে মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার

প্রবাসীদের সব খবর জানতে; প্রবাস কথার ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.