Featured বাংলাদেশ থেকে

বাস ও বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ, নিহত ৯

শেয়ার করুন

আজ শুক্রবার দুপুর ২টায় ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে ঢাকাগামী বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার ষোলঘর এলাকার এই দুর্ঘটনায় ঘটনাস্থলে ৬ জন ও হাসপাতালে নেওয়ার পর আরও ৩ জনের মৃত্যু হয়।

ষোলঘর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক শাহ আলম জানান, নিহতদের মধ্যে বর রুবেলের বাবা আ. রশিদ বেপারী (৭০), বোন লিজা (২৪), ভাগনী তাবাসসুম (৬) ও অপর ভাগনী রেনু (১২), ফুপা কেরামত বেপারী (৭০), বরের প্রতিবেশী মফিজুল মোল্লা (৬৫), বরের ভাইয়ের ছেলে তাহসান (৪) ও মাইক্রোবাস চালক বিল্লাল (৪০) নিহত হয়েছেন। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এদের মরদেহ আছে। আইনানুগ প্রক্রিয়া শেষে স্বজনদের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হবে।

তবে এই দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে। মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ৮ জনের মরদেহ আছে। ঢাকায় নেয়া চারজন আহতের মধ্যে দুইজন মারা যায় বলে বিকেলে জানান মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম। কিন্তু সন্ধ্যায় তিনি জানান, ঢাকা নেয়া আহত চারজনের মধ্যে দুইজন নয়, একজন মারা গেছেন। নিহতের নাম রুনা (২৪)। তিনি বরের বড় ভাই সোহেলের স্ত্রী। এছাড়া আহত জাহাঙ্গীর মারা যাননি, তিনি চিকিৎসাধীন আছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে শ্রীনগর থানার ওসি হেদায়েতুল ইসলাম ভূঁইয়া জানান,

লৌহজং উপজেলার কনকশার থেকে বরযাত্রী বহরের সাথে কেরানীগঞ্জের কামরাঙ্গীচর যাচ্ছিলো মাইক্রোবাসটি। পথে উপজেলার ষোলঘর এলাকায় স্বাধীন পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে মাইক্রোবাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে।

তিনি আরও বলেন,

নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত আরও ১০ জন। বাস ও মাইক্রোবাসটি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

এ ঘটনায় মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার বলেন,

নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে দেয়া হবে। তাদের দাফন ও যাতায়াত ভাড়া বাবদ এ টাকাটা দেয়া হবে।

তিনি আরও বলেন,

অতিরিক্ত জেলা মেজিস্ট্রেটকে প্রধান করে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তারা ১০ দিনের মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবেন

এই দুর্ঘটনায় হতাহতদের পরিবারে নেমে এসেছে শোকের মাতম। এখনো হাসপাতালে গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন আছেন আরও তিনজন।

  • সুমাইয়া হোসেন লিয়া, প্রবাস কথা, ঢাকা।
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.