Featured ইউরোপ ফিনল্যান্ড

ফিনল্যান্ডের রাজনীতিতে অনিশ্চয়তা, পদত্যাগ করবেন প্রধানমন্ত্রী?

শেয়ার করুন

ফিনল্যান্ডের রাজনীতিতে দেখা দিয়েছে অনিশ্চয়তা। যেকোন সময় প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের আশংকায় চলছে বিরতিহীন বৈঠক। এই অবস্থা শুরু হয়েছে সরকারের সহযোগী দলের অনাস্থার কারণে। শরিক সেন্টার পার্টির নেতারা বলছেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর প্রতি তাদের আস্থা নেই। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার দুপুরের মধ্যে এ অবস্থার মীমাংসা না হলে, একমাত্র পথ হচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ।

এ অবস্থায় নতুন কাউকে সরকার দলের মধ্য থেকে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করতে হবে। ফিনল্যান্ডের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আনততি রিননে মাস ছয়েক আগে, ক্ষমতাসীন দলের সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রধান হিসেবে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন। জাতীয় সংসদের নির্বাচনের পর তার দল আরো কয়েকটি সমমনা দলকে সাথে নিয়ে সরকার গঠন করে। সংসদের আসন সংখ্যার হিসেবে সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টির আসেনর সংখ্যা অন্যদের চেয়ে বেশি।

চলমান এ সংকট শুরু হয়েছে কয়েক সপ্তাহ আগে। দেশটির ডাক বিভাগের কর্মীরা কয়েক সপ্তাহের কর্মবিরতির ডাক দেয়। তাদের ৭০০ কর্মীর চাকরির জটিলতা নিয়ে ডাক দেয়া এ কর্মবিরতি চলে প্রায় দু’সপ্তাহ। এর সাথে রেল, বাস, বিমানের কর্মীরাও একাত্ম হয়ে একদিনের জন্য সব বন্ধ করে রাখে। এর প্রেক্ষিতে দেশজুড়ে বিশেষ করে রাজনীতিতে শুরু হয় আলোচনা- সমালোচনা।

ইতোমধ্যে ডাক বিভাগের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে। কিন্তু তাতে সমস্যা আরো বেড়েছে। ক্ষমতাসীন জোটের সেন্টার পার্টি বলছে, প্রধানমন্ত্রী অন্য দলগুলোকে সঠিক তথ্য জানায়নি এবং সংকটের শুরু থেকেই সেটি মীমাংসার পদক্ষেপ নিতে পারেনি। এ কারণে জোটের অংশ হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি তারা আস্থা রাখতে পারছে না।

এদিকে বিরোধী ডানপন্থী দলগুলো প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের সাথে সাথে নতুন করে নির্বাচন দেয়ার দাবি জানিয়েছে। ক্ষমতাসীন দলগুলোর মধ্যে সমঝোতা না হলে প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগ এবং নতুন প্রধানমন্ত্রী নির্বাচন করা এখন মাত্র সময়ের ব্যাপার।

  • জসিম সরকার, হেলসিংকি, ফিনল্যান্ড
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.