Featured যুক্তরাষ্ট্র রঙ্গের দুনিয়া

প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় আসছে ড্রোন-প্রযুক্তি!

শেয়ার করুন

আবহাওয়ার পূর্বাভাস জানার ক্ষেত্রে স্যাটেলাইটের উপরই বিশ্বের প্রায় সবকটি দেশ নির্ভর করে থাকে। কিন্তু সম্প্রতি এই ‘পুরনো’ পদ্ধতিকে পিছে ফেলেছেন একদল গবেষক। আবহাওয়ার খবর ও দুর্যোগ পরবর্তী পরিস্থিতি মোকাবেলায় ড্রোন-প্রযুক্তি ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন গবেষকরা।

কুইন্স ইউনিভার্সিটির গবেষকরা খুব অল্প খরচে টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়ন ঘটিয়েছেন বলে জানিয়েছেন। অতীতে সুনামি, ঝড় বা ভূমিকম্পের মতো দুর্যোগের সময় ফোনের সিগন্যাল ব্যবস্থা নষ্ট হয়ে যায়। এই আবিষ্কৃত নতুন প্রযুক্তির মাধ্যমে  ড্রোনগুলো স্বল্প সময়ের জন্য ওয়াইফাই হটস্পটের মাধ্যমে নেটওয়ার্ক তৈরি করতে পারবে।

গবেষণাকারী সংস্থা ‘ইনশিওরেন্স ইনফরমেশন ইনস্টিটিউট’ জানিয়েছে, ২০১৯ সালে সারা বিশ্বে ৮৫০টি প্রাকৃতিক বিপর্যয় ঘটে। অথচ ২০১৭ সালে ছিল এই সংখ্যা ছিল ৭৪০ এবং এক দশক আগে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সংখ্যা ছিল ৫০০।

দুর্যোগ মোকাবেলায় বর্তমানের প্রচলিত প্রযুক্তি অত্যন্ত দুর্বল। এছাড়া এই পূর্বাভাসের মাধ্যমগুলোও বেশ ব্যয়বহুল এবং খুব একটা শক্তিশালীও নয়। এর ফলে পূর্বাভাস সঠিকভাবে দেওয়ার বদলে এগুলো খুব সহজে নষ্ট হয়ে যায়।

অপরদিকে গবেষকদের আবিষ্কৃত ড্রোনগুলো খুব অল্প খরচে দুর্যোগ এলাকায় প্রদক্ষিণ করতে পারবে। এতে তাৎক্ষণিক আবহাওয়ার তথ্য সরবরাহের পাশাপাশি মোবাইল নেটওয়ার্কও সৃষ্টি করতে পারবে।

গবেষণাকারী সংস্থাটি জানায়, এই ড্রোন-প্রযুক্তির মাধ্যমে দুর্যোগ এলাকায় নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ রাখা সম্ভব হবে। এর ফলে অল্প সময়ের মাঝে প্রয়োজনীয় সকল তথ্য পাওয়া সম্ভব বলে আশাবাদী গবেষকরা।

  • সুমাইয়া হোসেন লিয়া, প্রবাস কথা, ঢাকা।
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.