Featured যুক্তরাজ্য সুইডেন

প্রবাসী বাংলাদেশী পেলেন ব্রিটেনে কারী শিল্পের অস্কার খ্যাত বিশেষ সম্মাননা পুরষ্কার

শেয়ার করুন

সুইডেনের সফল রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ী, দুই বার সুইডেনে বেষ্ট রেস্টুরেন্ট অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত স্পাইস ম্যান অব সুইডেন সেফ রেজাউল করিম, পেলেন ব্রিটেনে কারী শিল্পের অস্কার খ্যাত ব্রিটিশ কারী অ্যাওয়ার্ডে বিশেষ সম্মাননা পুরষ্কার অর্জন। রন্ধনশিল্পের অস্কার খ্যাত ব্রিটিশ কারী অ্যাওয়ার্ডের প্রবর্তক, বাংলাদেশী সফল ব্যবসায়ী প্রবাসী জনাব এনাম আলী। তিনি ২০০৫ সালে ইংল্যান্ডের লন্ডনে কারী শিল্পের নেপথ্যে যারা রয়েছেন তাদের শ্রেষ্ঠত্বকে স্বীকৃতি দিতে চালু করেন ব্রিটিশ কারী অ্যাওয়ার্ড।

 প্রতি বছরের ন্যায় এবারও জমকালো আয়োজনের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো ১৪তম ব্রিটিশ কারী অ্যাওয়ার্ড। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন রাজনৈতিক, বিনোদন ও ক্রীড়া জগতের এক ঝাঁক জনপ্রিয় ব্যাক্তিবর্গ। ব্রিটিশ সাবেক প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ পার্টির চেয়ারম্যান ব্যানার্ড লুইস (এম পি), স্যার ভিনস ক্যাবল(এম পি), ক্রিস গেইলিং(এম পি), খালেদ মাহমুদ(এম পি), সন্দিভ ভার্মা (এ পি) প্রমুখ। এছাড়া ছিলেন জনপ্রিয় কমেডিয়ান রাসেল ব্রান্ড, ফুটবলার ডেভিড স্যামন ও অন্যান্য সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের কমিউনিটির বিভিন্ন ব্যক্তিরা।

জমকালো সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে ১৩টি ক্যাটাগরিতে পুরষ্কার প্রদান করা হয়

৹ বেষ্ট ইন নর্থ ইস্ট: মমতাজ রেস্টুরেন্ট।
৹ বেষ্ট ইন নর্থ ওয়েস্ট: ইন্ডিক রেস্টুরেন্ট।
৹ বেষ্ট ইন ক্যাজুয়াল ডাইনিং: দাবাওয়াল
৹ বেষ্ট ইন লন্ডন সিটি: বুলুচি লন্ডন।
৹ বেষ্ট ইন ওল্যালস: রসি ওয়াটারফ্রান্ট।
৹ বেষ্ট নিউ কামার: ডিসুম ইন্ডিব্রুগ।
৹ বেষ্ট ইন সাউথ ইস্ট: মালিক’স।
৹ বেষ্ট ইন সাইথ ওয়েস্ট: কলসি রেস্টুরেন্ট।
৹ বেষ্ট ইন স্কটল্যান্ড: লাইট অব ব্যাঙ্গল।
৹ বেষ্ট ইন মিডল্যান্ড: পুসকার ককটেল বার এন্ড ডাইনিং।
৹ বেষ্ট টেক ওয়ে: চিলি টুক টুক।
৹ ইনস্পিরেশন অ্যাওয়ার্ড: আসা’স।
৹ বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার: সেফ রেজাউল করিম, ইন্ডিয়ান গার্ডেন। সুইডেন

দুইশত বছর আগে লন্ডনের জর্জ স্টিটে, ব্রিটেনে কারী শিল্পের উথ্যান শুরু হয়েছিল ভারতীয় শেখ দ্বীন মোহাম্মাদের হাত ধরে। যার নাম ছিল হিন্দুস্থান ক্যাফে হাউস। কিন্তু কালের পরিক্রমায় এই রেস্টুরেন্ট ব্যবসায়ের সিংহভাগই বর্তমানে বাংলাদেশীদের দখলে। বর্তমানে এই কারী শিল্প শুধু ব্রিটেনেই প্রায় পাঁচ বিলিয়ন পাউন্ড অর্থনৈতিক যোগান দিয়ে থাকে।

গুলজার আহাম্মেদ, সুইডেন

আরো পড়ুন-

একজন রাষ্ট্রদূত ; একটি মানবিক দূতাবাসের গল্প

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.