Featured অভিবাসন আফ্রিকা আমেরিকা ইউরোপ এশিয়া দূতাবাস খবর প্রবাস আইন মধ্যপ্রাচ্য মালয়েশিয়া শিক্ষা

প্রবাসী‌দের জন্য ‌মোবাইল অ্যাপ ‘দূতাবাস’ এর বিস্তা‌রিত

দেশে ও প্রবাসে অবস্থানরত বাংলাদেশি নাগ‌রিক‌দের কনস্যুলার ও কল্যাণ সেবা দেয়ার জন্য চল‌তি বছ‌রের মে মা‌সে ‘দূতাবাস’ নামে একটি মােবাইল অ্যাপ্লিকেশন চালু করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এই অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে যেকোন জায়গা থেকে পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় সংক্রান্ত সেবা গ্রহণ করা যাবে। শুরু‌তে ‘দূতাবাস’ অ্যাপ টি সব দে‌শে উন্মুক্ত না হ‌লেও পর্যায়ক্র‌মে সে‌টি উন্মুক্ত করা হ‌চ্ছে।

তারই ধারাবা‌হিকতায় মাল‌য়ে‌শিয়া‌তে গত জুলাই মাস থে‌কে অ্যাপ‌টি ব্যবহার করা যা‌চ্ছে। এই অ্যাপ্লিকেশনের মাধ্যমে বাংলাদেশি নাগরিকেরা সকল ধরনের কনস্যুলার সেবার জন্য আবেদন করতে পারবে। তাছাড়া স্মার্ট ফোনের মাধ্যমেই সেবা প্রদানের প্রক্রিয়া, ফিস এবং আবেদনকৃত সেবার আপডেট জানতে পারবেন।

‘দূতাবাস’ নামে এই মােবাইল অ্যাপ্লিকেশন টি গুগল ও এ্যাপল স্টোর এ রয়েছে। শুরু‌তে এ্যাপল স্টো‌রে না থাক‌লেও সরকা‌রের তরফ থে‌কে এ্যাপল কর্তৃপ‌ক্ষের কা‌ছে আবেদন করায় নাম মাত্র মূ‌ল্যে এ্যাপল তা‌দের স্টো‌রে ‘দূতাবাস’ অ্যাপ‌টি‌কে স্থান দি‌য়ে‌ছে। এখন যে কেউ চাইলে বিনামূ‌ল্যে এটি তার এন্ড্রয়েড কিংবা এ্যাপল ডিভাই‌সে ডাউনলােড করে নিতে পারবে। ত‌বে প্রত্যেক আবেদনকারীকে এই অনলাইন সেবা গ্রহনের আগে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। যদি এপ্লিকেশন ম্যানেজার কর্তৃক রেজিস্ট্রেশন অনুমােদিত হয়, তাহলেই আবেদনকারী কনস্যুলার ও কল্যাণ সংশ্লিষ্ট সেবা পাবেন।

আ‌রো পড়ুনঃ ২২ আগস্ট থেকে বন্ধ হচ্ছে ফেসবুকের গ্রুপ চ্যাট ফিচার

মালয়েশিয়ায় নি‌খোঁজ আইরিশ কিশোরীর মৃত্যু ও রহস্য

বাংলা‌দেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় সহ ৭৭ টি দে‌শে বাংলা‌দেশ মিশ‌নের নাম ঠিকানা টে‌লি‌ফোন ফ্যাক্স ও‌য়েবসাইট ও ইমেইল সহ তা‌লিকা পাওয়া যা‌বে ‘দূতাবাস’ অ্যাপের মাধ্য‌মে। সেই সা‌থে মিল‌বে ৩৪ ধর‌নের পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় সংক্রান্ত প‌রি‌ষেবা।

বিদেশে অবস্থানকারী প্রায় ১ কো‌টি ২০ লক্ষ বাংলাদেশিদের শিক্ষা সনদ, জন্ম ও মৃত্যু সনদ প্রত্যয়নসহ ৩৪ ধরনের সেবা দিয়ে থাকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও তার আওতাধীন বি‌দে‌শে অব‌স্থিত বাংলা‌দেশ মিশন গু‌লো। সীমাবদ্ধ স্ব-ক্ষমতা ও লোকবল দিয়ে এই সেবা কার্যক্রম চলছে। তবে সিস্টেম লস ও দুর্নীতির কারণে প্রবাসীদের অনেক সময় ভোগান্তি পোহাতে হয়। অবস্থা পাল্টে দিতে ডিজিটাল পদ্ধতিতে এসব সেবা দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছে মন্ত্রণালয়। সরকারের ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ অঙ্গীকার বাস্তবায়নে এই ‘দূতাবাস’ অ্যাপ এর কাজ সম্পন্ন হ‌য়ে‌ছে। সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সময়ে অ্যাপ তৈরির কাজ শুরু হয়। বর্তমান মন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন এর কাজ শেষ করেন। এরইমধ্যে দূতাবাস অ্যাপটি সেবা দেওয়ার জন্য উন্মুক্ত করা হ‌য়ে‌ছে।

বর্তমান পদ্ধতিতে স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন সেবা নিতে হয়। অর্থাৎ দেশে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং বিদেশে সংশ্লিষ্ট মিশনে হাজির হয়ে সেবা গ্রহণ করতে হয়। যেমন- মালয়েশিয়ায় অবস্থিত একজন বাংলাদেশি তার কোনও ডকুমেন্ট সত্যায়িত করতে চাইলে তাকে কুয়ালালামপুরে বাংলাদেশ দূতাবাসে গিয়ে প্রয়োজনীয় কাগজ জমা দিতে হবে। সেবা পাওয়ার জন্য দূতাবাস থেকে প্রয়োজনীয় ফরম সংগ্রহ করে নির্ধারিত ফি ব্যাংকে জমা দিতে হবে। পরে ওই স্লিপটি দূতাবাসে জমা কর‌তে হয়। সেবা সম্পন্ন হলে আবারও দূতাবাসে গিয়ে কাগজ সংগ্রহ করতে হবে। এক কথায় বলা যায়, সেবা নিতে একজন ব্যক্তিকে দুই বা তারও বেশি সময় দূতাবাসে আসা-যাওয়া করতে হয়, যা প্রবাসীদের জন্য অনেক সময়ই সম্ভব হয়ে ওঠে না। এসব কারণে প্রায়ই দালালদের সহযোগিতা নিতে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হন সেবা গ্রহীতারা।

কিন্তু অ্যাপের মাধ্যমে কোনও ব্যক্তিকে স্ব-শরীরে হাজির হওয়ার প্রয়োজন নেই। কারণ,সম্পূর্ণ বিষয়টি ডিজিটাল প্রক্রিয়ায় সম্পন্ন হবে। সেবা গ্রহণকারী ব্যক্তিকে প্রথমে দূতাবাস অ্যাপে অ্যাকাউন্ট খুলতে হবে। পরে ৩৪টি সেবার মধ্যে যে সেবাটি দরকার, সেই মেন্যুতে ক্লিক করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রের ছবি তুলে অ্যাপে আপলোড করতে হবে। যেমন, কেউ যদি শিক্ষা সনদ সত্যায়িত করতে চান, তবে তাকে শিক্ষা সনদ, পাসপোর্ট ও জাতীয় পরিচয়পত্রের ছবি অ্যাপে আপলোড করতে হবে। পরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় নিজস্ব তত্ত্বাবধানে সব প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে সত্যায়িত সনদের কপি সেবাগ্রহীতার অ্যাকাউন্টে পাঠিয়ে দেবে। এরপর ওই কপিটি প্রিন্ট করে নিয়ে প্রয়োজনীয় কাজে ব্যবহার করা যাবে।

আ‌রো পড়ুনঃ মদিনায় বাস দুর্ঘটনায় বাংলাদেশি হাজি নিহত

দেশ ভে‌দে সেবা সমূ‌হের ফি ভিন্ন ভিন্ন হ‌বে তবে পূ‌র্বের নির্ধারীত ফি বহাল র‌য়ে‌ছে অ্যা‌পের ক্ষে‌ত্রেও। যেমন মাল‌য়ে‌শিয়া‌তে ২৫ টি কনস্যুলার সেবার প্র‌তি‌টি ২০ রি‌ঙ্গিত ক‌রে প্রদান কর‌তে হ‌বে।

কনস্যুলার সেবা সমূহঃ

(০১) বাের্ড/বিশ্ববিদ্যালয়/স্কুল/কলেজ/মাদ্রাসা কর্তৃক প্রদত্ত সনদ, (০২) পারিবারিক সনদসমূহ ও বিবাহসংক্রান্ত  অন্যান্য দলিলাদি,(০৩) জন্ম সনদ/মৃত্যু সনদ,(০৪) অবিবাহিত সনদপত্র,(০৫) অভিভাবক সনদপত্র,(০৬) পুলিশ ক্লিয়ারেন্স,(০৭) এফিডেভিট,(০৮) স্থানীয় আমমােক্তারনামা/চুক্তিনামা,(০৯) চারিত্রিক সনদ/জাতীয়তা সনদ/অভিজ্ঞতা সনদ/জাতীয় পরিচয়পত্র সনদ/নিবন্ধনপত্র ইত্যাদি,(১০) অনূদিত সনদ,(১১) মেডিকেল সার্টিফিকেট,(১২) সাধারণ ডায়েরী,(১৩) ড্রাইভিং লাইসেন্স,(১৪) পাসপাের্ট কপি,(১৫) সম্পত্তির হিসাব, মাসিক/বাৎসরিক আয়ের হিসাব,(১৬) বিনিয়ােগ সংক্রান্ত দলিল,(১৭) হজ্জ্ব এবং ওমরাহ্ এর সনদপত্র,
(১৮) জনশক্তি বিষয়ক/এজেন্সীর দলিলাদি,(১৯) বীমা ও বাণিজ্যিক সনদপত্র প্রত্যয়ন (এলসি, ট্রেডলাইসেন্স, সার্টিফিকেট অফ ইনকরপােরেশন),(২০) ব্যাংক বিবরণী/সনদপত্র,(২১) ওয়ারিশ/উত্তরাধিকারসাকসেশন সনদ,
(২২) বিদেশ থেকে প্রেরিত আম মােক্তারনামা,(২৩)ইয়াতিমখানা কাম মাদ্রাসা ইত্যাদির রেজিষ্ট্রেশন,
সনদ প্রত্যয়ন,(২৪) ব্যাংকিং অথবা বিবিধ আর্থিক প্রতিষ্ঠানের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ইনস্টিটিউট কর্তৃক প্রদত্ত শর্ট ট্রেনিং কোর্স সমাপনী সনদ, (২৫) তালাক সনদপত্র, প্রত্যয়ন।

পূ‌র্বের ম‌তো ‌বিনামূ‌ল্যে ৫ টি কল্যান মূলক সেবাও মিল‌বে ‘দূতাবাস’ অ্যা‌পে।

কল্যান সেবা সমূহঃ
(০১) প্রবাসে আটক বাংলাদেশীদের দেশে প্রত্যাবাসন, (০২) চাকুরিরত অবস্থায় মৃত্যুবরণকারী প্রবাসী বাংলাদেশীদের ক্ষতিপূরণ আদায়ে সহায়তা, (০৩) প্রবাসে অবস্থানরত আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্হ বা পঙ্গুত্ববরণকারী বাংলাদেশীদের ক্ষতিপূরণ আদায়ে সহায়তা, (০৪) প্রবাসে মৃত্যুবরণ কারী বাংলাদেশীদের লাশ দেশে ফিরিয়ে আনা, (০৫) প্রবাসে অবস্থানরত বাংলাদেশীদের জরুরী অবস্থায় সহায়তা।

‌বিঃ দ্রঃ পাসপাের্ট হারিয়ে যাওয়ায় ট্রাভেল পার্মিট এর জন্য আবেদন ৪৪ রি‌ঙ্গিত পূ‌র্বের ম‌তোই বহাল র‌য়ে‌ছে। নতুন পাস‌পো‌র্টের আবেদন কিংবা পাস‌পোর্ট রি-ইস্যু সংক্রান্ত সেবা এই অ্যা‌পের মাধ্য‌মে পাওয়া যা‌বে না। সেবা গ্র‌হিতা‌কে পাস‌পোর্ট সংক্রান্ত ব্যা‌পা‌রে পূ‌র্বের নিয়‌মে দূতাবা‌সে হা‌জির হ‌য়ে সেবা গ্রহন কর‌তে হ‌বে।

‘দূতাবাস’ অ্যাপ‌টি রে‌জি‌ষ্ট্রেশন করার জন্য অবশ্যই পাস‌পোর্ট ও জাতীয় প‌রিচয় পত্র সহ এক‌টি ইমেইল আইডি আবশ্যক করা হ‌য়ে‌ছে। কেননা প্র‌তি‌টি প্রত্যয়ন বা সেবা সংক্রান্ত বিস্তা‌রিত সেবা গ্র‌হিতার ইমেইলে ও অ্যা‌পের ‘আপনার সেবা’ অপশ‌নে প্রেরন করা হ‌বে। একবার রে‌জি‌ষ্ট্রেশন করার পর যে কোন দে‌শের যে কোন মিশন থে‌কে সেবা গ্রহন করা যা‌বে। কেননা অ্যাপ‌টি‌তে স্বয়ং‌ক্রিয় ভা‌বে দূতাবাস প‌রিবর্ত‌নের অপশন রাখা হ‌য়ে‌ছে। যেমন মাল‌য়ে‌শিয়া থে‌কে রে‌জি‌ষ্ট্রেশন করার পর ইটা‌লি‌তে ভ্রমন কর‌লে উক্ত দে‌শে অবস্থান ক‌রে দূতাবাস প‌রিবর্তন করা যা‌বে।

এই অ্যাপের বিশেষ দিক হচ্ছে, এখানে সেবাগ্রহণকারী আবেদন করার সঙ্গে সঙ্গে সেবাগ্রহণ করার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে এবং যে সেবা চান তার বিস্তারিত উল্লেখ করে স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটি চিঠি পাঠানো হবে। শুধু তাই না আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কী পদক্ষেপ নিয়েছে সেটিও তিনি অ্যাপের মাধ্যমে জানতে পারবেন। এছাড়া, ডিসট্রেস কল ও মানবপাচার প্রতিরোধের জন্যও দুটি অপশন আছে এই অ্যাপে। যার মাধ্য‌মে সং‌শ্লিষ্ট দূতাবাস গু‌লোর সা‌থে সরাস‌রি যোগা‌যোগ স্থাপন করা যা‌বে।

আ‌রো পড়ুনঃ অনলাই‌নে ম্যাক‌ডোনা‌ল্ড চি‌কেন না‌গেট অর্ডা‌রের সা‌থে জ্ব‌রের ঔষধ চাই‌লেন গ্রাহক

বর্তমা‌নে অ্যা‌পটি এ্যাপল ও এন্ড্র‌য়েড মি‌লে প্রায় দুই হাজা‌রের ম‌তো ডাউন‌লোড করা হ‌য়ে‌ছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় থে‌কে ‘দূতাবাস’ অ্যাপ‌টি ব্যবহার করার জন্য স‌চেতন সকল প্রবাসী‌দের প্র‌তি অনু‌রোধ করা হ‌য়ে‌ছে।

‌মোহাম্মদ আল আমিন, প্রবাস কথা, মাল‌য়ে‌শিয়া

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.