Featured বাংলাদেশ থেকে

উড়োজাহাজ ‘গাঙচিল’ উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে যুক্ত হলো বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির আরও একটি ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ ‘গাঙচিল’। বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের ভিভিআইপি টার্মিনালে উড়োজাহাজটির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ প্রথমবারের মতো যাত্রী নিয়ে আকাশে উড়াল দেবে বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনারটি। বিকাল সাড়ে ৫টায় ঢাকা থেকে আবুধাবির উদ্দেশে এর যাত্রা শুরু হবে।

জানা যায়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পছন্দে উড়োজাহাজটির নামকরণ করা হয়েছে ‘গাঙচিল’। বিমানের চারটি ড্রিমলাইনারের নামই দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আগামী সেপ্টেম্বর মাসে দেশে আসতে পারে চতুর্থ ড্রিমলাইনার ‘রাজহংস’।

ছবি সংগৃহীত

গত ২৫ জুলাই বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত গাঙচিল দেশে আসে। এ উড়োজাহাজ যুক্ত হওয়ার মধ্য দিয়ে বিমানের বহরে বাণিজ্যিক উড়োজাহাজের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৫টি।

গাঙচিল-এ আসন সংখ্যা ২৭১টি। এর মধ্যে বিজনেস ক্লাস ২৪টি আর ২৪৭টি ইকোনমি ক্লাস। বিজনেস ক্লাসে ২৪টি আসন ১৮০ ডিগ্রি পর্যন্ত রিক্লাইন্ড সুবিধা এবং সম্পূর্ণ ফ্ল্যাটবেড হওয়ায় যাত্রীরা আরমদায়কভাবে স্বাচ্ছন্দ্যের সাথে ভ্রমণ করতে পারবেন। উড়োজাহাজটিতে যাত্রীরা অন্যান্য আধুনিক সুবিধাসহ ইন্টারনেট ও ফোন কল করার সুবিধাও পাবেন।

বিশ্বের সর্বাধুনিক প্রযুক্তির উড়োজাহাজ ড্রিমলাইনার একটানা ১৬ ঘণ্টা উড়তে পারে। অন্য উড়োজাহাজের চেয়ে এর জ্বালানি খরচও ২০ শতাংশ কম।

২০০৮ সালে বিমান মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কোম্পানির সঙ্গে ১০টি ব্র্যান্ড নিউ উড়োজাহাজ কিনতে চুক্তি করে। ইতোমধ্যে চারটি নতুন বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, দুটি নতুন বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও দুটি বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার উড়োজাহাজ বিমানের বহরে যুক্ত হয়েছে।

  • প্রবাস কথা ডেস্ক 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.