দি মার্চ্যান্ট রয়্যাল; সাগরতলে হারিয়ে যাওয়া জাহাজ

the-Merchant-Royal.jpg

ছবি সংগৃহীত

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের একদল ফিশিং ক্রু ১৭ শতাব্দীতে ডুবে যাওয়া একটি জাহাজের নোঙর খুঁজে পেয়েছে। এই নোঙরটি যুক্তরাজ্যের কর্নিশ কোস্ট, যা ইরিলি নামক ব্রিটিশ পোর্ট থেকে ৩২ কিলোমিটার (২০ মাইল) দূরে অবস্থিত স্থান থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। 

নোঙরটির মাধ্যমে বিশেষজ্ঞ দল জানিয়েছে, এই জাহাজটির সময়কাল ছিল ১৬০০-১৮০০ সালের মাঝামাঝি। যা ২৩ সেপ্টেম্বর, ১৬৪১ সালে সুমদ্রের অতলে হারিয়ে যায়।

এই জাহাজটিকে বিশ্বের অন্যতম প্রাচুর্য বহন করা জাহাজ বলে ধারণা করা হচ্ছে। কেননা এই জাহাজটি যখন যাত্রা শুরু করেছিল তখন জাহাজটিতে ১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সমপরিমাণ ধনসম্পদ বিদ্যমান ছিল বলে জানা যায়।

জাহাজটিকে “the El Dorado of the seas” বা “দি মার্চ্যান্ট রয়্যাল” ( the Merchant Royal ) নামে অবহিত করা হচ্ছে। জাহাজটি ১ লাখ পাউন্ডের স্বর্ণ, চারশ মেক্সিকান রুপার বার এবং ৫ লাখ এইট ( স্প্যানিশ ডলার ) বহন করা অবস্থায় গভীর সাগরে তলিয়ে গিয়েছিল।

তবে স্থানীয় অভিজ্ঞদের মতে যে স্থান থেকে নোঙরটি উদ্ধার করা হয়েছে সেখানে অনুসন্ধান চালানো সাধারণ ডুবুরীদের জন্য অত্যন্ত বিপদজনক, সেক্ষেত্রে উপর মহল থেকে বড় আকারের পরিকল্পনা অনুসারে অনুসন্ধান চালানো হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মার্ক মিলবার্ন, যিনি ‘কর্নওয়াল মেরিটাইম আর্কিওলজি’ এর কো-ফাউন্ডার এবং ‘আটলান্টিক স্কুবা’ এর প্রধান, তিনি জানান-

“এই নোঙরটি মার্চ্যান্ট রয়ালের নোঙরের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ। তবে কোনো ধরণের পর্যাপ্ত ও উন্নত উপকরণ ছাড়া এই উদ্ধার কাজ বা তদারকি আগানো সম্ভব নয় কেননা এটি সমুদ্রের ৩০০ ফিট গভীরে, যা আমাদের ডুবুরিদের জন্য একেবারেই নিরাপদ নয়।”

তবে বিশেষজ্ঞদের মতে প্রায় ৪ শতাব্দী পর এই জাহাজটির ধ্বংসাবশেষ খুঁজে পাওয়ার পাশাপাশি এতে বিদ্যমান ১ বিলিয়ন বা বাংলাদেশি টাকায় ৮,৩৯৭ কোটি টাকার সমপরিমাণ ধন-সম্পদ খুঁজে পাওয়াটাও প্রায় অসম্ভব ব্যাপার।

  • সুমাইয়া হোসেন লিয়া, প্রবাস কথা, ঢাকা 

আরও পড়ুন- বিমান ভ্রমন; যে কারণে যাত্রী সেবা পেতে আমরা ব্যর্থ হচ্ছি!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.