Featured সুস্থ থাকুন

গরমের দিনে ঠান্ডা লাগা; যে সমস্যার সাথে আমরা সবাই পরিচিত

সবে মাত্র গ্রীষ্মের শুরু, অথচ চৈত্র যেন চারদিকে হুংকার ছেড়ে নিজের বিদায় নিশ্চিত করছে। গ্রীষ্ম দোরগড়ায় কড়া নাড়ার আগেই তীব্র রোদ আর ভ্যাপসা গরমের সাথে আমরা সবাই ই কমবেশি পরিচিত ইতিমধ্যে হয়ে গেছি। এমন সময় আমাদের গরম লাগার পাশাপাশি ‘ঠান্ডা’ও লেগে যায়। এই তীব্র গরমে জ্বর, সর্দি, হাঁচি-কাশি এবং মাথা ব্যথা- এমন রোগ প্রতিটি ঘরেই লেগে থাকে। এই রোগগুলো চৈত্র বিদায় নিতে না নিতেই যেন হাজির হয় আমাদের বাড়িতে।
তীব্র জ্বর এই রোগের অন্যতম বহিঃপ্রকাশ
যে কারণে এই রোগগুলো হয়ে থাকে-
আপনি জেনে অবাক হবেন, এই কাঠাফাটা রোদে চারপাশের পরিবেশ স্যাঁতস্যাঁতে বা অপরিষ্কার না হলেও ২০০ এর অধিক জীবাণু এই শুষ্ক পরিবেশে ঠিকই ঘুরে বেড়ায়। নানাধরণের ভাইরাস আপনার গলা, নাক এবং চোখের পাশাপাশি আপনার পরিপাকতন্ত্রেও আঘাত হানতে পারে। যার ফলস্বরূপ আপনি এই ‘ভাইরাস জ্বর’ বা ‘ঠান্ডা লাগা’ তে আক্রান্ত হতে পারেন।
ভাইরাসরোগের লক্ষণ-
  • গলাব্যথা
  • কানব্যথা (*অনেকের ক্ষেত্রে দাঁতে ব্যথা)
  • মাথা ব্যথা
  • তীব্র জ্বর
  • বমিভাব
  • শ্বাসকষ্ট
  • হাঁচি
  • শুকনো কাশি অথবা কফ

    ভাইরাসই ঠান্ডা লাগার মূল কারণ
উপরের লক্ষণগুলো প্রকাশ পেলে ঘাবড়ানোর কিছু নেই। জ্বর বা ঠান্ডার সময় আপনি যে অষুধ সবসময় সেবন করেন সেটিই কাজে দিবে। এক্ষেত্রে যথাযম্ভব এন্টিবায়োটিক এড়িয়ে চলা উচিত। তবে যদি তীব্র জ্বরের পাশাপাশি শরীরে র‍্যাশ উঠে যায় তাহলে দ্রুত ডাক্তারের কাছে যাওয়াই শ্রেয়।
এই সমস্যা থেকে যেভাবে নিস্তার পাবেন-
  • বিশ্রামে থাকুন
  • তরল জাতীয় খাবার এবং পানির কোনো বিকল্প নেই
  • ঠান্ডা খাবার এড়িয়ে চলুন

    সঠিক এবং পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে
  • বাইরে থেকে এসে আগে শরীর ঠান্ডা করে নিবেন, এরপর গোসল বা হাতমুখ ধোয়ার কাজ সারবেন
  • গলায় ব্যথা হলে হালকা গরম পানি এবং লবণ দিয়ে গড়গড়া করতে হবে
  • অবশ্যই নিজেকে পরিষ্কার রাখুন, কোনোভাবেই ধুলাবালি যেন শরীরে নিজের আশ্রয় বানাতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখুন
  • পুষ্টিকর খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন
  • বাইরের খাবার, বিশেষ করে রাস্তার পাশের খোলা খাবার একেবারেই খাবেন না।
এই ঋতুতে ঠান্ডা লাগা অনেকটাই স্বাভাবিক ব্যাপার। কিন্তু এই সামান্য ঠান্ডা লাগা থেকে অনেক সময় অনেক বড় ধরণের রোগও হতে পারে। তাই শিশুদের প্রতি বিশেষ নজর দিন।
এই ভাইরাসজনিত রোগ থেকে নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে সুরক্ষিত করতে হলে অবশ্যই সমস্যা মোকাবেলার পদ্ধতি জানতে হবে। সেক্ষেত্রে বাড়তি যত্ন আর একটু সচেতনতাই পারে এই সমস্যা থেকে সকলকে দূরে রাখতে।
  • সুমাইয়া হোসেন লিয়া, প্রবাস কথা, ঢাকা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.