Featured মধ্যপ্রাচ্য সংযুক্ত আরব আমিরাত

জাতীয় দিবস উপলক্ষে বর্ণিল সাজে সজ্জিত আমিরাত

শেয়ার করুন

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত। বাংলাদেশের সঙ্গে মাত্র ১৪ দিন ব্যবধানে স্বাধীন হওয়া সংযুক্ত আরব আমিরাত একটি আধুনিক সুশৃঙ্খল দেশ, স্থানীয়দের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা, কারিগরি নির্মাণ শৈলি। অনুপম উন্নয়নে আরব আমিরাত ইতোমধ্যে আধুনিক বিশ্বের নজর কেড়েছে। মধ্যপ্রাচ্যের সেরা গন্তব্য হিসেবে বিবেচনা করা হয় সংযুক্ত আরব আমিরাতকে। দেশটির স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস এ উপলক্ষে আমিরাতে সেজেছে অপরূপ সাজে।

আরব উপদ্বীপে পারস্য উপসাগরের দক্ষিণ-পূর্বে এবং ওমান উপসাগরের উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত সংযুক্ত আরব আমিরাত। ৭টি প্রদেশ নিয়ে গঠিত দেশটি ১৯৭১ সালের ২ ডিসেম্বর ব্রিটিশদের থেকে স্বাধীনতা লাভ করে। এ বছর ৪৮তম স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস। ৭টি প্রদেশর মধ্যে আবুধাবি, দুবাই, শারজাহ, আজমান, উম্মুল কুয়াইন ফুজিরা এবং রাস-আল-খাইমা।

স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে আবুধাবি, দুবাই, শারজাহ, আজমান, ফুজাইরাহ, রাস আল খাইমাহ, উম্ম আল কোয়াইন-সহ আমিরাতের প্রধান সড়ক জাতীয় পতাকার পাশাপাশি আলোকিত ফরটি এইট শোভা বাড়াচ্ছে। বিমান মহড়া, ঝরণা, আলোকসজ্জা, আতশবাজি, উঁচু ভবনে রঙ বেরঙের সাজসজ্জা আর আলোর ঝলকানি। আমিরাতজুড়ে সাজানো হয়েছে নানা রঙের ব্যানার ফেস্টুন। স্কুল কলেজ, অফিস আদালত, সুপার ও হাইপার মার্কেটগুলো সেজেছে নানান সাজে।

দিবসটি উদযাপনের লক্ষ্যে আরবীদের পাশাপাশি অনেক ভিনদেশী নাগরিক আমিরাতের শেখদের ছবি ও পতাকা দিয়ে নিজেদের গাড়ি সাজাচ্ছেন। আমিরাতের ৭টি প্রদেশ সাগরপাড়ে রোববার দিবাগত রাতে সজ্জিত গাড়ির প্রদর্শনী দেখানো  হয়েছে। রাতে মহাসড়কগুলোতে আমিরাতে অবস্থানরত বিভিন্ন দেশের প্রবাসীসহ, আমিরাতে অবস্থানরত পর্যটকরা ভিড় জমান।

স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষ্যে ৭ প্রদশের শেখরা স্থানীয়দের পাশাপাশি আমিরাতে বসবাসরত সকল অভিবাসীদের অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

  • ওবায়দুল হক মানিক, সংযুক্ত আরব আমিরাত

আরও পড়ুন- একজন মানুষের প্রবাসী হয়ে উঠার গল্প

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.