Featured বাংলাদেশ থেকে

কিছুটা শক্তি হারিয়েছে ‘বুলবুল’

শেয়ার করুন

বড় ধরণের পূর্বাভাস ছাড়াই মারাত্মক আকার ধারণ করা ঘূর্ণিঝড় বুলবুল সম্পর্কে নতুন তথ্য দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। আজ শনিবার রাত ৮টায় ঘূর্ণিঝড়টির সর্বশেষ অবস্থা সম্পর্কে  সাংবাদিকদের সাথে কথা বলেন জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ আয়েশা খানম।

তিনি জানিয়েছেন, উপকূলের ২০০ কিলোমিটারের কাছাকাছি আসার পর পরই বুলবুলের শক্তি পূর্বের তুলনায় কমেছে।  বিকালের দিকেও ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রে বাতাসের একটানা গতিবেগ ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটার থেকে ১৪০ কিলোমিটার ছিল।

জ্যেষ্ঠ আবহাওয়াবিদ আয়েশা খানম বলেন,

“গতি এখন কিছুটা কমেছে। ঘূর্ণিঝড়ের চারপাশে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় ১১০ থেকে ১৩০ কিলোমিটার।”

ঘূর্ণিঝড়টি এখন উপকূলের কাছাকাছি জানিয়ে আয়েশা খানম বলেন,

“ঘূর্ণিঝড় উপকূলে আঘাত হানা এখনো শুরু করেনি। এখন উপকূলের কাছাকাছি। মধ্যরাতে অতিক্রম করতে পারে। উপকূল অতিক্রমকালে ঘণ্টায় ১০০ কিলোমিটার থেকে ১২০ কিলোমিটার ঝড় বয়ে যাবে। এর প্রভাবে সংশ্লিষ্ট এলাকায় ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টি হতে পারে।

তিনি জানিয়েছেন, রাত ৮টায় ঘূর্ণিঝড়টি মংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ২১০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ২৫৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে, চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ৪২৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে এবং কক্সবাজার থেকে ৪৩০ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থান করছিল।

তবে এ বিষয়ে ভারতের আবহওয়া বিভাগ জানিয়েছে, সন্ধ্যা ৭টায় ঘূর্ণিঝড়টি যখন উপকূলের সাগর দ্বীপে থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে ছিল, তখন এর কেন্দ্রে বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১২০-১৩০ কিলোমিটার। ঘণ্টা দুয়েকের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়টি উপকূলে আঘাত হানবে বলে মনে করছে তারা।

  • সুমাইয়া হোসেন লিয়া, প্রবাস কথা, ঢাকা।
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.