Featured এশিয়া চীন

“করোনা ভাইরাসের উৎপত্তিস্থলে আমরা যেমন আছি”

শেয়ার করুন

সম্প্রতি চায়নার হুবেই প্রদেশের উহান শহরের করোনা ভাইরাস সম্পর্কে মোটামুটি বিশ্বের সকল সচেতন মানুষই অবগত। আমি এই উহান শহরে দীর্ঘ প্রায় ৬ বছর ধরে বসবাস করছি।  

সন্দেহ নেই বর্তমানে আমরা কঠিন সময় অতিবাহিত করছি। এরপরও বলব বর্তমান পরিস্থিতিতে আমরা যারা উহান শহরে আছি, তাদের জন্য উহান শহরই করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য সবচেয়ে নিরাপদ শহর। কারন, এটি মোকাবেলা করার জন্য এই শহরে যে পরিমাণ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে, বিশ্বের অন্য কোথাও এত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

চায়নার অন্য শহর গুলো থেকে উহানে করোনা ভাইরাস মোকাবেলার জন্য বিশেষজ্ঞ ডাক্তার নিয়ে আসা হয়েছে। চিকিৎসা কর্মীরা তাদের সবচেয়ে বড় উৎসব চাইনিজ নববর্ষ উদযাপন করতে নিজেদের বাড়িতে না গিয়ে নিরলসভাবে ভাইরাসে আক্রান্তদের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। চীনের বিশ্ববিদ্যালগুলোতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে পড়তে আসা শিক্ষার্থীদেরকে এই পরিস্থিতি প্রতিরোধ ও মোকাবেলা করার নির্দেশিকা নিয়মিতভাবে জানানো হচ্ছে এমনকি ব্যক্তিগত পর্যায়ে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে।

আজ সকালে আমার অফিস থেকে আমাকে জানানো হয়েছে আমি যেন প্রতিদিন আমার শরীরের তাপমাত্রা সম্পর্কে তাদেরকে জানাই। অর্থাৎ যদি কোন অসঙ্গতি দেখা দেয় তাহলে তারা যেন দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে।

কিন্তু আমরা যদি করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচার উদ্দেশ্যে উহান ত্যাগ করি তাহলে নিশ্চয়ই উহান থেকে পালিয়ে যাব! যেটা আমাদের দেশ ও পরিবারের জন্য হবে কঠিন হুমকি। কারন, আমাদের মধ্যে যদি কেউ এটা নিয়ে দেশে প্রবেশ করি তাহলে সঠিক চিকিৎসাও পাবনা আবার উহানে ফিরেও আসতে পারবনা। সেটা হবে নিজের ও দেশের উভয়েরই জন্য চরম ক্ষতিকর।

আর একটা বিষয়, দেশের মিডিয়া এবং আনেকেই ধারণা করছেন এখানে খাদ্যের সংকট হবে। এটা সম্পুর্নই ভুল ধারণা। যদি পুরো চায়নাতেই খাদ্যের সংকট হয় কেবলমাত্র তাহলেই উহানে খাদ্যের সংকট হবে। না হয় উহানে খাদ্যের সংকট হবেনা।

কারন, যে দেশের সরকার সংকটময় পরিস্থিতিতে মাত্র ৬ দিনে ১ হাজার শয্যার হাসপাতাল নির্মাণ করে তারা আবার তাদের দেশে খাদ্যের মজুত থাকলে অন্য জায়গা থেকে জনগণেকে খাদ্য সরবরাহ করবে না এটা ভাবা নিতান্তই বোকামি হবে।

এটা ঠিক বর্তমানে চীনে খাদ্যের সরবরাহ কম এবং দাম বেশি। এটার কারল হলো, বর্তমান চাইনিজ নববর্ষ চলছে। আমি গত ৬ বছর ধরে দেখে আসছি এই সময়ে খাদ্যের দাম বেশি থাকে এবং সরবরাহ কম থাকে।

তাই আমার যে যেখানে যে পরিস্থিতিতে আছি সেটা সৃষ্টিকর্তার উপর ভরসা রেখে ধৈর্য্যের সাথে মোকাবেলা করাই হবে বুদ্ধিমানের কাজ।

  • ড. মোঃ এনামুল হক, উহান বিশ্ববিদ্যালয়, হুবেই, চায়না।
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.