Featured মধ্যপ্রাচ্য সৌদি আরব

আমি বেঁচে না থাকলে, ওরা কিভাবে চলবে?

দেশে যাওয়া আমার খুবই দরকার। আমি বেঁচে না থাকলে, ওরা কিভাবে চলবে? কথা গুলো বলছিলেন ২৩ বছর ধরে সৌদি আরবে বসবাসকারী জসিম উদ্দিন। গত ৮ দিন ধরে সৌদির জার্মান হাসপাতালে আইসিইউতে ভর্তি রয়েছেন তিনি, এরমধ্যে তাঁর অস্ত্রোপাচার হয়েছে।

তিনি এই বয়সেও অনেক স্মার্ট। আমি এমন মানুষ কে আমার নিজ গ্রামে দেখেনি। তিনিও আমাকে কোনদিন দেখেনি, দেখলেও ছোট বয়সে দেখেছি, ঠিক কবে দেখেছি মনে নেই।

আজকের দিন সহ ৪ দিন আমি ওনাকে দেখতে গিয়েছিলাম, তার মধ্যে দুই তিনি আমাকে দেখেছে, বাকি দুইদিন তিনি ঘুমিয়ে ছিলেন। প্রথম দিন আমি পরিচয় দিয়েছি, আমি মোবারক। পুরোপুরি চিনতে পেরেছিলো কিনা জানা নেই।

আমার ডিউটি শেষ হয় স্থানীয় সময় রাত ৯ টায়। সেখান থেকে সরাসরি চলে গেলাম হাসপাতালে, যেহেতু তিনি আইসিইউতে আছে। হাসপাতালে সাক্ষাৎ এর কিছু নিয়ম আছে, এই হাসপাতালে বিকেল ৩ থেকে ৪ পর্যন্ত এই সময়ে সাক্ষাৎ করতে হয়। সিকিউরিটি গার্ডকে গিয়ে বললাম- এই রোগীর সাথে দেখা করা খুবই দরকার। সে আমাকে বললো-এক প্যাকেট সিগারেট নিয়ে আয়, আমি তোকে ঢুকতে দিবো। শর্ত মেনে তার দেওয়া টাকা দিয়ে সিগারেট এনে দিয়ে ১০ মিনিট সময়ের জন্য ভিতরে ঢুকতে দেয়।

ভিতরে ঢুকে ওনার পাশে গিয়ে দাঁড়ালাম, ৫ মিনিট দাঁড়িয়ে রইলাম। পরে আমি মাথায় হাত দিলাম, কিছুক্ষণ পর চোখ মেলে দেখে জিজ্ঞেস করলেন- কখন এসেছো? কি নাম তোমার? আমি উত্তর দিলাম।

এই অবস্থাতেও পরিবারের কথা, তুমি তাদের (পরিবারে) বলো, ইনশাআল্লাহ আমি ভালো হয়ে যাবো। আমি না থাকলে, তারা কেমনে চলবে?

আমি আমার নিজেকে কোনমতে কন্ট্রোল করে চোখের পানি পড়ার আগে বিদায় নিলাম।

প্রতিটি প্রবাসীর দেশে থাকা পরিবার প্রতিদিন প্রতি মুহূর্ত খবর চায়, আমার ভাই কেমন আছে? স্ত্রী জানতে চায়- আমার স্বামী কেমন আছে? অসুস্থ প্রবাসীও হাসপাতালে শুয়ে ছোট ছোট সন্তানদের চিন্তায় মগ্ন থাকে।

  • মোবারক ভুঁইয়া, জেদ্দা, সৌদি আরব 

আরও পড়ুন- কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসের স্টাফদের অনৈতিক আচরণ, ব্যবস্থা নিচ্ছে সরকার

প্রবাসীদের সব খবর জানতে; প্রবাস কথার ফেসবুক পেইজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.