Featured অন্যান্য এশিয়া

আফগানিস্তানে মার্কিন দূতাবাসের সামনে রকেট হামলা

নিউ ইয়র্কের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারসহ তিনটি স্থানে ভয়াবহ হামলার ১৮ বছর পূর্তি আজ। আর এই দিনে আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের মার্কিন দূতাবাসের সামনে রকেট হামলা চালিয়েছে জঙ্গিরা।

জানা গেছে, বুধবার ভোররাতে কাবুলের মার্কিন দূতাবাসের সামনে জোরালো বিস্ফোরণে শব্দ শোনা যায়। দূতাবাস চত্বর ঢেকে যায় ধোঁয়ায়। তবে, এতে কেউ হতাহত হননি বলে জানিয়েছে দূতাবাস কর্তৃপক্ষ। বার্তাসংস্থা এপি জানিয়েছে, এ হামলার বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনো মন্তব্য করেনি আফগান কর্তৃপক্ষ। তাছাড়া এখন পর্যন্ত এই হামলার দায় স্বীকার করেনি কেউ।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তালেবানের সঙ্গে শান্তি আলোচনা বাতিল ঘোষণার পর এটাই প্রথম হামলার ঘটনা।

গত সপ্তাহে কাবুলে দু’টি ভয়াবহ গাড়ি বোমা হামলায় দুই ন্যাটো সদস্যসহ বেশ কয়েকজন বেসামরিক লোক নিহত হন। এ ঘটনার জেরেই তালেবানের সঙ্গে শান্তি আলোচনা বাদ দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ট্রাম্প।

শুরুর দিকে আফগানিস্তানে প্রায় এক লাখ মার্কিন সেনা মোতায়েন হলেও লাদেন নিহত হওয়ার পর এ সংখ্যা কমতে শুরু করে। বর্তমানে দেশটিতে ১৪শ’ মার্কিন সেনা রয়েছে। এসব সেনা প্রত্যাহারের বিষয়েই তালেবানের সঙ্গে ওয়াশিংটনের আলোচনা চলছিল।

‘নাইন ইলেভেন’র এ হামলায় নিহত হন ৭৮টি দেশের মোট ২ হাজার ৯৯৬ জন মানুষ। শুধু ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে চালানো দু’টি হামলায় প্রাণ হারান ২ হাজার ৭৬৩ জন। পেন্টাগনে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সদর দফতরে হামলায় নিহত হন উড়োজাহাজের ৬৪ আরোহীসহ ১৮৯ জন। তবে, পরিকল্পনা ব্যর্থ হলেও ৪৪ আরোহীসহ পশ্চিম পেনসিলভানিয়ার একটি ফাঁকা জায়গায় বিধ্বস্ত হয় ছিনতাই করা চতুর্থ উড়োজাহাজটি।

এ ঘটনার জেরেই তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ আল কায়েদা ও ৯/১১’র মাস্টারমাইন্ড ওসামা বিন লাদেনকে দমনে আফগানিস্তানে সামরিক অভিযান চালানোর নির্দেশ দেন।

  • প্রবাস কথা ডেস্ক 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.