ইউরোপ গ্রিস

গ্রীসে তৃতীয় বারের মত প্রবাসীদের জন্য ‘আইনি সহায়তা’ শীর্ষক কর্মশালা

শেয়ার করুন

গ্রীসে বাংলাদেশ দূতাবাস কর্তৃক তৃতীয় বারের মতো অনুষ্ঠিত হল প্রবাসীদের জন্য “আইনি সহায়তা” বিষয়ক কর্মশালা। গত মঙ্গলবার (২৫ জুন ২০১৯) বিকেলে পশ্চিম গ্রীসের লাপা এলাকার স্থানীয় একটি স্কুলে এই কর্মশালাটির উদ্বোধন করেন গ্রীসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ জসীম উদ্দিন।

মানোলাদা ও লাপার আশেপাশে বসবাসকারী বিপুল সংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালায় দূতাবাসের উদ্যোগে একজন বিশিষ্ট গ্রীক আইনজীবী ভাসিলিস কেরাসিওতিস উপস্থিত ছিলেন। কর্মশালার শুরুতে সূচনা বক্তব্য রাখেন দূতাবাসের কাউন্সেলর ড. সৈয়দা ফারহানা নূর চৌধুরী।

বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ জসীম উদ্দিন তাঁর বক্তব্যে বলেন-

“প্রবাসী বাংলাদেশের বিভিন্ন আইনি পরামর্শের প্রয়োজন হয়। তাদের সঠিক পরামর্শ এবং সহায়তা প্রদানের জন্য এই আইনি সহায়তা শীর্ষক কর্মশালার আয়োজন করা হয়। ভবিষ্যতেও এই ধরণের কর্মশালার আয়োজন অব্যাহত থাকবে এবং যে কোন আইনি সহায়তার জন্য দূতাবাসের দরজা সব সময় খোলা। তিনি স্থানীয় প্রবাসীদের আইন কানুন মেনে চলার পরামর্শ দেন।”

তিনি লাপা ও মানোলোদাবাসীসহ সেখানে বসবাসকারী সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার জন্য অনুরোধ করেন।

তিনি আরও বলেন যে, প্রবাসীরা বাংলাদেশের গৌরব, মাননীয় প্রধান্মন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ যে এগিয়ে যাচ্ছে, প্রবাসীরা সেই অগ্রযাত্রার গুরুত্বপূর্ণ অংশ । প্রবাসীদের আইনি সহায়তা প্রদান করা সরকারের একটি গুরুত্বপূর্ণ নীতি।

আয়োজিত এই কর্মশালায় মহান মুক্তিযুদ্ধে সকল শহীদদের প্রতি এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করে রাষ্ট্রদূত প্রবাসীদের আইন মেনে সুন্দর জীবন জাপন করার এবং সেই সাথে দেশের অব্যাহত উন্নয়নে অবদান রাখার আহবান জানান।

কর্মশালায় একজন সুনামধন্য আইনজীবী, যিনি ইতিপূর্বে মানোলোদার স্ট্রবেরি কেসে বাংলাদেশীদের পক্ষে ইউরোপিয়ান আদালতে রাই পেয়েছেন এবং গত ৭ জুন ২০১৮ তারিখে মানোলোদার অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশর আইনগত সহায়তা করেছেন।

তিনি গ্রীসে বৈধভাবে বসবাস করার নিয়মকানুন, গ্রীসে প্রচলিত আইন অনুযায়ী বৈধতা অর্জনের উপায় এবং প্রবাসীদের আইনি অধিকার তুলে ধরেন। প্রবাসীদের জন্য তাঁর বক্তব্যের বাংলা অনুবাদ করে দেন দূতাবাসের প্রথম সচিব জনাব সুজন দেবনাথ।

গ্রীসে মানোলোদায় ও লাপাই বসবাসকারী সর্বস্তরের প্রবাসীগণ এই প্রশ্ন -উত্তর পর্বে অংশগ্রহণ করেন। এই কর্মশালায় তারা আইন বিষয়ক বিভিন্ন প্রশ্ন উপস্থাপন করেন এবং গ্রীক আইনজীবী তাঁদের প্রশ্নের উত্তর দেন। প্রায় তিন ঘণ্টাব্যাপী এই প্রশ্ন – উত্তর পর্বে প্রবাসীরা তাঁদের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরেন এবং আইনজীবীর মাধ্যমে দূতাবাস তাঁদের আইনি পরামর্শ প্রদান করেন।

মুহাম্মদ আল আমিন, গ্রীস প্রতিনিধি

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.