ফ্রান্স

প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলার তিন বছর; সে রাতে ঘুমাতে পারিনি

শেয়ার করুন

প্যারিসে সন্ত্রাসী আক্রমনের তিন বছর হয়ে গেলো ৷ ২০১৫ সালের ১৩ই নভেম্বর ফ্রান্সের প্যারিসের জন্য ছিলো একটি মর্মান্তিক, শোকাহত কালো রাত ৷ স্থানীয় সময় রাত ৯:১৬ থেকে ৯:২০ মিনিটের দিকে ফ্রান্স ও জার্মানির প্রীতি ম্যাচ চলাকালীন সময়ে ফ্রান্সের জাতীয় স্টেডিয়াম প্যারিসের অদূরে সাঁ-ডোনি শহরে অবস্থিত স্তাদ দি ফ্রঁন্স এর সামনে সে সন্ত্রাসী হামলা হয় ৷ একজন সন্ত্রাসী নিজেকে আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণ করে উড়িয়ে দিয়ে হামলার শুরু করেন ৷

ঘটনার সময় ফ্রান্সের তৎকালীন রাষ্ট্রপতি ফ্রসোয়া ওঁলন্ড (François Hollande) মাঠে উপস্থিত ছিলেন ৷ এরপর রাত ৯:২৫ এর দিকে প্যারিসের অন্যতম প্রাণকেন্দ্র প্লাস দ্য লা রেপুবলিকের অতি নিকটে রু বিশা (Rue Bichat)ও রু আলিবের্ট (Rue Alibert) এ অবস্থিত কারিইঁও (Carillons) এবং পেতি কম্বোজ (Petit Cambodge) রেস্টুরেন্টে গুলিবর্ষণ করা হয় একটি কালো সেয়াত গাড়ি থেকে ফলে ঘটনাস্থলেই ১৫ জন নিহত হয় ৷ এরপর ৯:৩০ মিনিটের দিকে স্তাদ দ ফ্রঁন্স – এ দ্বিতীয় আত্মঘাতী হামলা করা হয় ১জন সন্ত্রাসী মারা যায় সাথে একজন সাধারণ মানুষের মৃত্যু ঘটে ৷

এর সাথে সাথেই রাত ৯:৩২ মিনিটের দিকে প্যারিস প্লাস দ্য লা রেপুবলিকের (Place de République) কাছেই রু দ্য লা ফোনতেন ও রোয়ায় ( Rue de la Fontaine au Roi) তে অবস্থিত দুটি রেস্টুরেন্ট লা বোন বিয়ের (La Bonne Bière) এবং লা কাজা নস্ত্রা ( La Casa NOSTRA) নামক রেস্টুরেন্টে হামলা চালায় সেই কালো রঙের সেয়াত গাড়ির সন্ত্রাসীরা,হামলায় ঘটনাস্থলে ৫ জন মৃত্যুবরন করেন ৷ পরবর্তীতে কালো গাড়ির সন্ত্রাসীরা রাত ৯:৩৬ মিনিটে আসেন রু দ্য শারোন (Rue de Charonne) নামের রোডে অবস্থিত লা বেল একিইপ ( La Belle Équipe) নামের রেস্টুরেন্টে ওখানে এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণে ১৯ জনের মৃত্যু ঘটে এর কিছুক্ষণ পরেই রাত ৯:৪০ মিনিটে প্লাস দ্য লা রেপুবলিকের কাছেই আমেরিকার বিখ্যাত রোক ব্যান্ড ঈগল ডেথ মেটালের ( Eagle Death Metal) কনসার্ট চলাকালীন সময়ে বাতাক্লঁ ( Bataclan) থিয়েটারে ৪ জন সন্ত্রাসী ঢুকে এলোপাতাড়িভাবে গুলি করে হামলা শুরু করে, ঘটনাস্থলে ৮৯জন মানুষ মারা যায় ৷ দুজন সন্ত্রাসী আত্মঘাতী বোমায় নিজেদের মেরে ফেলে আর পুলিশের গুলিতে একজন সন্ত্রাসী মারা যায় ৷

ঠিক একই সময় ঘটনাস্থলের নিকটবর্তী বুলভার্ড ভোল্তের এ একজন সন্ত্রাসী আত্মঘাতী বিস্ফোরণ করে মারা যায় ৷ সর্বশেষ রাত ৯:৫৩ মিনিটে স্তাদ দ ফ্রঁন্সের পেছনে রু দ্য কক্রি তে একজন সন্ত্রাসী আরেকবার আত্মঘাতী হামলার সাথে নিজেকে শেষ করে দেয় সেই সাথে সন্ত্রাসী হামলাও শেষ করে ৷ ওদিকে বাতাক্লঁ থিয়েটারে দর্শকের একাংশকে জিম্মি করে রেখে ছিলো সন্ত্রাসীরা ৷ পরে ১৪ তারিখ দিবাগত রাত সাড়ে বারোটার দিকে ফ্রান্স পুলিশের বিশেষ এলিট বাহিনীর একটি দল যিআইযিএন (GIGN) সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে ও জিম্মিদের উদ্ধারের উদ্দেশ্যে অভিযান শুরু করে ৪০ মিনিট পর রাত ১টায় সে অভিযানের সমাপ্তি হয় ।

প্যারিস এবং সেন্ট-ডেনিসের মর্মান্তিক ও রক্তাক্ত ঘটনাগুলির তিন বছর পর মঙ্গলবার ১৩ ই নভেম্বর ২০১৮ সালে নিহত ১৩০ জনের স্মরণে একটি শোক সভা ও শোক র্যালি অনুষ্ঠিত হবেছে। উক্ত অনুষ্ঠানে নিহত সকলের নাম পাঠ করে স্মরণ করা হয় ৷ গত বছরের মতো, র্যালিটি সকাল ৯টায় স্তাদ দ্য ফ্রঁন্স থেকে শুরু হয়ে হামলাকারী প্রতিটি স্থান এ অবস্থিত প্রতিটি বার ও রেস্টুরেন্ট প্রদক্ষিণ করে বেলা ১১টার দিকে বাতাক্লঁ থিয়েটারে এসে শেষ হবে । তবে গত বছরের মত রাষ্ট্রপতি এম্যাণূয়েল ম্যাক্রঁ উপস্থিত থাকেন নি । তাঁর পরিবর্তে ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী এডুয়ার্ড ফিলিপ র্যালিটির নেতৃত্বে থাকবেন সাথে আরো ছিলেন প্যারিসে সিটি মেয়র আন ঈডালগো এবং প্যারিসের ১১টম ডিস্ট্রিক মেয়র ফ্রঁসোয়া ভগলাঁ ৷

ঘটনার পর রাতে ঘুমাতে পারিনি! পরদিন আমার তৎকালীন কর্মস্থলের জায়গা হামলার ঘটনাস্থল থেকে অতি নিকটে হওয়ায় আমার সিইও র সাথে প্রায় রাগারাগি করেই আমার অফিস বন্ধ রেখেছিলাম ৷ কারন ঘটনার পর ফ্রান্স কারফিউ জারী করা হয় এবং প্যারিসে বিশেষকরে হামলার ঘটনাস্থলের কাছাকাছি জায়গাগুলোতে চলাচলের ক্ষেত্রে এড়িয়ে যাবার জন্য আহবান করেন তৎকালীন ফরাসি রাষ্ট্রপতি ৷ ঘটনার ৫দিন পর ১৮ই নভেম্বর প্যারিসের নিকটে সা ডোনি শহরের একটি জায়গাতে পুলিশের অভিযানে বন্দুক যুদ্ধের পর সন্ত্রাসী সাকিব আখরুর আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণের মাধ্যমে প্রধান হামলাকারী আব্দেল হামিদ আবাউদ সহ ২ জন মারা যায় ৷

পরে সেই সন্ত্রাসীর মেয়ে কাজিন হাসনা আইত বুলাসেন নিজের আত্মঘাতী বোমা বিস্ফোরণের মাধ্যমে মারা যায় এতে এলিট পুলিশের একটি ট্রেনিংপ্রাপ্ত কুকুর মারা যায় ও ৬ জন আহত হয় ৷ অন্যতম প্রধান একমাত্র জীবিত হামলাকারী সালাহ আব্দেসসালাম বেলজিয়ামে গ্রেফতার হয় ৷ ঘটনার পরে বছর ২০১৬ সালের ২২ শে মার্চ তাকে গ্রেফতার করে বেলজিয়ামে সম্ভাব্য সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পক হিসেবে ৷ তাকে গ্রেফতারের ঠিক ৬ দিন পরেই বেলজিয়ামে সন্ত্রাসী হামলা হয়, পরে বেলজিয়াম ১ মাস পর ২৭শে এপ্রিল ২০১৬ ফ্রান্সের কাছে সোপর্দ করে ৷ এর মাঝে বেলজিয়াম আদালত গত ২৩ এপ্রিল ২০১৮ তারিখে সালাহকে ২০ বছরের সাজা দেয় বেলজিয়ামে সন্ত্রাসী কার্যক্রম এর সাথে সংশ্লিষ্ট থাকার কারণে ৷

• আওয়াল রহমান,ফ্রান্স

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.