বাংলাদেশ থেকে

দক্ষিণ কোরিয়ায় লোক নিয়োগের সার্কুলার আসছে

যারা সরকারিভাবে দক্ষিণ কোরিয়া আসতে চান, কিছুদিনের মধ্যেই তাদের জন্যে সার্কুলার হতে যাচ্ছে। ২০১৬ সালে বাংলাদেশের ইপিএস রোস্টার কোটা ৩৬০০, সর্বোচ্চ এমপ্লয়মেন্ট কোটা ২৮০০। আগামী দু’এক দিনের মধ্যে বিস্তারিত সিবিটি সিডিউল প্রকাশ করা হবে।

□ লটারির মাধ্যমে নেয়া হবে প্রাথমিকভাবে নেয়া হবে ৩২০০ জনকে।

□ সিবিটি পরীক্ষার মাধ্যমে ১৬০০ জনকে বাছাই করা হবে।

□ দক্ষতা পরীক্ষাসহ সব স্কোর যোগ করে সর্বোচ্চ নম্বর এর ভিত্তিতে ২০১৬ সালের রোস্টার এর জন্য মোট প্রায় ৮০০ জনকে নির্বাচিত করা হবে।

রোস্টার কোটা ৩৬০০ জনের থাকলেও, যেহেতু এই কোটার পুরাতন কিছু লোক আছে তাই তাদের আনুমানিক সংখ্যা বাদ দিয়ে ৮০০ জন এর মতো রোস্টার করা হতে পারে। এখান থেকে ধারণা করা হচ্ছে, ইপিএস টপিক সিবিটি উত্তীর্ণ হলেও প্রায় তিন চতুর্থাংশ লোক রোস্টারে ঠাই পাবে না। তার ফলে এদের সিবিটি পাশ করার কোন তাৎপর্য থাকবে না। সুতরাং যেন তেন নম্বর নিয়ে সিবিটিতে উত্তীর্ণ হলে তেমন কোন লাভ হবে না।

□ সিবিটি চলবে মে থেকে আগস্ট পর্যন্ত। অক্টোবরে হতে পারে স্কীল টেস্ট রেজিস্ট্রেশন। তারপর স্কীল টেস্ট/দক্ষতা পরীক্ষা হতে পারে নভেম্বরে। ডিসেম্বরের ভেতরেই রোস্টার অনুমোদন সম্পন্ন হতে পারে।

□ যারা স্কীল টেস্ট রেজিস্ট্রেশনের সময় যারা ভুয়া চাকরির সনদ বা ট্রেনিং সার্টিফিকেট জমা দেবে তারা স্কীল টেস্টে অংশগ্রহণ বা উত্তীর্ণে অযোগ্য বলে বিবেচিত হবে। এবারের স্কীল টেস্টে যুক্ত হচ্ছে কালার ব্লাইন্ডনেস (রঙ চেনা যায় কিনা) টেস্ট এবং বেসিক স্কীল টেস্টেও কিছু নতুন ধরণ যুক্ত হতে পারে।

□ কালার ব্লাইন্ডনেস টেস্টে অনুত্তীর্ণ হলে অন্য সব স্কোর ভাল থাকলেও সে রোস্টারভুক্ত হবে না। সুতরাং সিবিটির প্রাথমিক রেজিস্ট্রেশন করার আগেই উপযুক্ত পরীক্ষাগারে গিয়ে কালার ব্লাইন্ডনেস টেস্ট করিয়ে নেয়া বুদ্ধিমানের কাজ হবে।

11750640_411077005747028_5758472517009966823_n

□ কিছু দুষ্কৃতিকারী ইচ্চাপূর্বক অন্যের পাসপোর্ট নম্বর ব্যবহার করে অন্যকে ক্ষতিগ্রস্ত করে আসছিল এবং পাসপোর্ট নম্বরের একটি ডিজিট পরিবর্তনের মাধ্যমে একাধিকবার রেজিস্ট্রেশন করে ভুল পাসপোর্টটি লটারিতে ওঠার পর বিভিন্ন অন্যায্য পদ্ধতিতে চুড়ান্ত রেজিস্ট্রেশন করে আসছিল। এ সকল অন্যায্য সুবিধা বন্ধ করতে এবারের লটারিতে দেয়া হবে শুধু পাসপোর্ট নম্বর। পরবর্তীতে চূড়ান্ত রেজিস্ট্রেশনের দিন লটারিতে জিতে যাওয়া সেই পাসপোর্টটিই সাথে নিয়ে আসতে হবে। না হলে চূড়ান্ত রেজিস্ট্রেশন করা যাবে না। প্রাথমিক অনলাইন রেজিস্ট্রেশন সফল হলে হয়ত তার একটা কপি প্রিন্ট করা যাবে। কিন্ত এটা শুধুমাত্র প্রার্থীর আত্ম-তৃপ্তির জন্য। চুড়ান্ত রেজিস্ট্রেশনের সময় এটা দেখাতে হবে না। এমন কি এটা প্রমান হিসেবে দেখিয়ে পাসপোর্ট নম্বর ভুল টাইপ করেছি, কিন্তু রেজিস্ট্রেশনটি আমার- এমন কথাও বলা যাবে না। সোজা কথা হলো, যে পাসপোর্ট নাম্বারটি লটারিতে উঠেছে সে পাসপোর্টের মালিক পাসপোর্টটি এবং পে অর্ডার স্লিপটি নিয়ে আসলেই রেজিস্ট্রেশন সম্ভব হবে। কিছু লোক আগে থেকেই দালালের কাছে পাসপোর্ট দিয়ে রাখে এবং পরে লটারিতে টিকলে দালালকে ধোকা দিয়ে পুরাতন পাসপোর্ট হারানো দেখিয়ে আরেকটি পাসপোর্ট বানায়। এমন সুবিধা আর থাকছে না। লটারিতে ওঠা সেই পাসপোর্ট নম্বরটি উল্লেখ করা আছে এমন অন্য কোন পাসপোর্টও গ্রহণ করা হবে না। কোন ক্ষমতাধরকে দিয়ে ফোন করিয়েও লাভ হবে না।

□ স্কীল টেস্ট রেজিস্ট্রেশনের সময় কেউ ভুয়া সার্টিফিকেট জমা দিলে তার সেই বছরের সিবিটি ও স্কীল টেস্ট ফলাফল বাতিল হয়ে যাবে। পরবর্তী ২ বছর সিবিটি অংশগ্রহনে অযোগ্য ঘোষণা, আইনী ব্যবস্থা গ্রহন এমনকি রোস্টার হওয়ার পরও কারো সার্টিফিকেট ভূয়া পাওয়া গেলে তার রোস্টার বাতিল করা হবে।

□ স্কীল টেস্ট এর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর নির্ধারিত ওয়েবসাইট থেকে কাজের অভিজ্ঞতার সনদ পত্রের ফরমেট ডাউনলোড করে সংশ্লিষ্ট কোম্পানিকে (যে কোম্পানিতে কাজ করা হয়েছলি) দিয়ে পূরন এবং সই-সীল লাগিয়ে জমা দিতে হবে। আর যদি সেই কোম্পানিটি বর্তমানে আর না থাকে তাহলে তাদের জন্য আর একটি আলাদা ফরমেট আছে। সেটি নিজে পুরণ করে, কোন গ্যারান্টরকে দিয়ে সই করিয়ে জমা দিতে হবে এবং সেই গ্যারান্টরকে তথ্যের সত্যতার ব্যাপারে দায়-দায়িত্ব নিতে হবে।

□ ট্রেনিং সার্টিফিকেট হতে হবে সরকারি এজেন্সি বা সরকার কর্তৃক অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ইস্যূকৃত।  কত ঘন্টা প্রশিক্ষণ নেয়া হয়েছে তা সার্টিফিকেটে উল্লেখ থাকতে হবে। কত ঘন্টার সার্টিফিকেট থাকলে কত নাম্বার দেয়া হবে তা শুধুমাত্র ইন্টারভ্যূ কর্তৃপক্ষই জানেন। সুতরাং ক’মাস মেয়াদি প্রশিক্ষণ সার্টিফিকেট জমা দিতে হবে, সেই প্রশ্ন আর না করাই ভাল। মাসের সাথে এর কোন সম্পর্ক নেই। তবে সর্বনিম্ন কত ঘন্টা হতে হবে- এ ব্যাপারে খবর নেয়া যেতে পারে।

# রোস্টারঃ কোন শ্রমিক যখন পরীক্ষায় পাশ করবে তখন তার নাম কোরিয়ায় সরকারিভাবে তালিকাভুক্ত করাকেই রোস্টার বলে।

# সিবিটিঃ কম্পিউটার বেসিক ট্রেনিং।

12422343_1061692620559994_1689877795_o

like mini

৪৩ Replies to “দক্ষিণ কোরিয়ায় লোক নিয়োগের সার্কুলার আসছে

  1. আবার সার্কুলার কবে দেবে জানাবেন।।। এবং বিদেশ থেকে অন্য কাউকে দিয়ে কি ফর্ম পুরোন করতে পারবো কি? সেটা জানাবেন

  2. পাসপোর্ট ছাড়া কি আবেদন করা জাবে কি কোরিয়া, যদি যায় তাহলে আমাকে একটু বলবেন আমি কম বেশি সব কাজ করতে পারি এবং কিকি কাগজ লাগবে কবে এই আবেদন টি করতে হবে এবং কথাথেকে করব যদি জানান তাহলে ভাল হত ০১৯২১১৩৭০২১ এই নাম্বারে জানালে হবে pzzzzz আমাকে জানাবে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.