মালয়েশিয়া

সরকার নির্ধারীত বেতন না পাওয়ার অভিযোগ মাল‌য়ে‌শিয়া প্রবাসীদের

শেয়ার করুন

প্রায় এক বছর পূ‌র্বে বাড়‌তি স্বচ্ছলতার আশায় স্থানীয়‌ এক দালা‌লের হাত ধ‌রে মাল‌য়ে‌শিয়‌া পা‌ড়ি জমান পাবনার আতাইকুলার মোঃ ইদ্রিস। বাংলা‌দেশ ও মাল‌য়ে‌শিয়ার সরকার পর্যা‌য়ের জিটুজি প্লাস (কলিং) ভিসার আওতায়‌ বহু হাত ঘু‌রে তিন লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকায় ভিসার ব্যবস্থা হয় মাই ক্লিন না‌মের এক‌টি এজেন্ট ভি‌ত্তিক ক্লিনার কোম্পানী‌তে।
চু‌ক্তিপ‌ত্রে লেখা ছি‌লো বে‌সিক আট ঘন্টা কাজ, পরব‌র্তি ঘন্টা ওভারটাই হিসা‌ব করা হ‌বে। মা‌সে চার দিন ছু‌টি সহ আনুষা‌ঙ্গিক সু‌যোগ সু‌বিধা। সর্বসাকু‌ল্যে পু‌রো মাস কাজ ক‌র‌লে প্রায় ১৭০০ রি‌ঙ্গিত বেতন পাওয়া যা‌বে।

বুক ভরা আশা আর স্বপ্ন নি‌য়ে জ‌মি জমা বন্ধক সহ সু‌দের মাধ্য‌মে টাকা নি‌য়ে স্ব‌প্নের দেশ মাল‌য়ে‌শিয়া‌তে পা‌ড়ি জমায় বাংলাদেশী ইদ্রিস। চো‌খে জ্বলজ্বল করা স্বপ্ন, বন্ধক ছু‌টি‌য়ে দেনা প‌রি‌শোধ ক‌রে নি‌জের জন্য বস‌তি জ‌মি কিন‌বে। ছোট্ট একটা বা‌ড়ি কর‌বে‌। সন্তান‌দের পড়াশুনা ক‌রি‌য়ে মানুষ কর‌বে। কিন্তু মাল‌য়ে‌শিয়া‌র নি‌র্দিষ্ট কোম্পানী‌তে পৌছা‌নোর পর সব স্বপ্ন ভে‌ঙ্গে যায় ইদ্রি‌সের। থাকার জায়গা হ‌য়ে‌ছে স্টোর রু‌মের ম‌তো একটা গোডাউ‌নে, গাদাগা‌দি ক‌রে প্রায় ত্রিশ জন লোক। কাজ দৈ‌নিক ১২ ঘন্টা বাধ্যতামূলক, থাকা ‌কোম্পানীর হ‌লেও মা‌সে থাকা বাবদ ৫০ রি‌ঙ্গিত কে‌টে রাখা হ‌য়। বেতন বে‌সি‌ক ও ওভার টাইম আলাদা কোন হিসাব নাই, টানা ১২ ঘন্টা কা‌জের ম‌ধ্যে ১ ঘন্টা রেস্ট হ‌লেও মা‌সে মাত্র ২ দিন ছু‌টি ৷ মাস চু‌ক্তি মাত্র ১৪০০ রি‌ঙ্গিত বেতন ৷ থাকা খাওয়া বা‌দে বিশ হাজার টাকার বে‌শি বা‌ড়ি‌তে পাঠা‌নো কোন ম‌তেই সম্ভব না।

‌কি ক‌রে এই সল্প বেত‌নে কাজ ক‌রে পাহার সমান ঋনের বোঝা কমা‌বেন সেই চিন্তায় রা‌তে ঠিক ম‌তো ঘুম হয়না।
মাসের পর মাস এভা‌বেই চল‌ছে, প্র‌তিবাদ কর‌লে কা‌জের প‌রিমান বে‌ড়ে যায়। অথবা অন্য কোথাও বদ‌লি ক‌রে দেয়া হয়, এমন‌কি শা‌রি‌রিক নির্যাতন পর্যন্ত করা হয়। এক‌জোট হ‌য়ে সক‌লে মি‌লে কিছু কর‌বে সে সু‌যোগও নাই।
সবাই মি‌লে হাই ক‌মিশ‌নে অভি‌যোগ করার পরামর্শ দেয়া হ‌লে ভ‌য়ে কেউ সাহস ক‌রে না। কেননা য‌দি বা‌ড়ি পা‌ঠি‌য়ে দেয় ত‌বে ঋনের টাকা শোধ কর‌বে কিভা‌বে!
সল্প বেতন দেয়ায় শ্রমীকরা যা‌তে কোথাও অভি‌যোগ কর‌তে না পা‌রে সেজন্য বেত‌নের স্লিপ পর্যন্ত দেয়া হয় না। বেত‌নের স্লিপ চাই‌তে গে‌লে ভা‌গ্যে জোটে অশ্রাব্য ভাষায় গালাগা‌লি। এমন হাজা‌রো ইদ্রিস ক‌লিং ভিসায় মাল‌য়ে‌শিয়া‌তে এসে হয় কাজ পায়‌নি আর কাজ পে‌লেও মাল‌য়ে‌শিয়ার সরকার নির্ধ‌ারীত বেতন পা‌চ্ছেনা। বেতন ও কাজ ঠিক না হওয়া‌তে ঋনের কথা চিন্তা ক‌রে বহু শ্রমিক অবৈধ হবার পথ বে‌ছে নি‌য়ে‌ছে। উল্লেখ্য জানুয়ারী মা‌সে সেপাং এলাকায় ব‌কেয়া বেতন ও অানুষা‌ঙ্গিক সু‌যোগ সু‌বিধা আদা‌য়ে বড় আকা‌রের শ্র‌মিক অস‌ন্তোষ দেখা দি‌য়ে‌ছি‌লো। যার বে‌শিরভাগ গত ক‌লিং এর মাধ্য‌মে আসা শ্র‌মিক। য‌দিও তখন হাই কশি‌নের হস্ত‌ক্ষে‌পে প‌রি‌স্থি‌তি স্বাভা‌বিক হ‌য়ে‌ছি‌লো।

এদি‌কে চল‌তি বছ‌রের ফেব্রুয়ারী মাস থে‌কে মাল‌য়ে‌শিয়ার সরকার অভিবাসী শ্র‌মিক‌দের নতুন বেতন কাঠা‌মো ঠিক ক‌রে দি‌য়ে‌ছে। তা‌তে স্পষ্ট উল্লেখ করা আছে যে, বি‌ভিন্ন ফেক্টরী সহ সাধারন শ্র‌মিক‌দের কা‌জের প্রাথ‌মিক পর্যা‌য়ে পূ‌র্বের বে‌সিক বেতন এক হাজার থে‌কে উন্নিত ক‌রে এক হাজার একশত করা হ‌য়ে‌ছে। সেই হিসা‌বে বহু কোম্পানী শ্র‌মিক‌দের বেতন দি‌লেও শত শত কোম্পানী সেটা মান‌ছে না। ফ‌লে গত বছর ক‌লিং এর মাধ্য‌মে আসা হাজা‌রো শ্র‌মি‌কের অবস্থা দূরুহ । কোথাও কোথাও বে‌সিক ঠিক দি‌লেও ওভারটাইম বে‌সি‌কের হিসাব অনুযায়ী দেয়া হ‌চ্ছেনা। আবার কোন কোন কোম্পানী বেতন আট‌কে রা‌খে যা‌তে শ্র‌মিকরা অন্য কোথাও চ‌লে যে‌তে না পা‌রে। যার ফ‌লে অবৈধ হওয়ার প্রবনতা বাড়‌ছে।

বাংলা‌দেশ সরকা‌রের প্রবাসী কল্যান ও বৈ‌দে‌শিক প্র‌তিমন্ত্রী ইমরান আহ‌মেদ মালয়ে‌শিয়া সফর কা‌লে গনমাধ্য‌মে ব‌লেন যে, কিছু বাড়‌তি আয়ের আশায় যা‌তে বাংলা‌দে‌শি শ্র‌মিকরা অবৈধ না হয়। কিন্তু যেখা‌নে মাল‌য়ে‌শিয়া সরকা‌রের নির্ধারীত ন্যায্য ‌বেতন শ্র‌মিকরা পা‌চ্ছেনা সেখা‌নে তারা কিভা‌বে আশা ক‌রে শ্র‌মিক অবৈধ হ‌বে না। এদি‌কে বাংলা‌দেশ হাই ক‌মিশনে এমন বিষ‌য়ে আলাপ কর‌লে তারা ব‌লেন যে কোন শ্র‌মিক অভি‌যোগ কর‌লে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হ‌বে। ‌যেখা‌নে বেত‌নের স্লিপ পর্যন্ত দেয়া হয় না, প্র‌তিবাদ কর‌লে নির্যাতন সহ্য কর‌তে হয় সেখা‌নে শ্র‌মিকরা র‌য়ে‌ছে উভয় সংক‌টে। পাম বাগা‌নের শ্র‌মিক থে‌কে শুরু ক‌রে বি‌ভিন্ন কোম্পানীর বেতন বৈষ‌ম্যের এমন ন‌জির এখন প্র‌তি‌নিয়ত লক্ষ্য করা যায়। তাছাড়া এসব কোম্পানীর বে‌শির ভাগই প‌রিচালনা করা হয় তা‌মিল দের দি‌য়ে তাই সেখা‌নে প‌রি‌স্থি‌তি এমন যে, শ্র‌মিকরা ভ‌য়ে পর্যন্ত মুখ খুল‌তে চায় না। প‌রি‌শে‌ষে ভাগ্য‌কে মে‌নে নি‌য়ে এভা‌বেই তা‌দের দিন চ‌লে।

মাল‌য়ে‌শিয়া প্র‌তি‌ষ্ঠিত বাংলা‌দে‌শি ও ক‌মি‌উনি‌টির লো‌কেরা ম‌নে ক‌রেন হাই ক‌মিশ‌নের তদার‌কি ও সরকারের নজরদারী পা‌রে এমন সমস্যার সমাধান কর‌তে। বৈধতার সু‌যোগ না চে‌য়ে বা নতুন শ্র‌মিক প্রের‌নের আগে মাল‌য়ে‌শিয়া‌তে বৈধ শ্র‌মিক‌দের অবৈধ হওয়ার কারন গু‌লো খ‌তি‌য়ে দেখ‌া উচিৎ এবং অবৈধ‌দের দ্রুত দে‌শে যারার ব্যবস্থা কারার উপর জোর দেন তারা।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.