দক্ষিণ কোরিয়া

দক্ষিন কোরিয়ায় কোরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতায় বাংলাদেশী প্রথম

শেয়ার করুন

গত রবিবার দক্ষিন কোরিয়ার সবচেয়ে জনপ্রিয় সংগঠন ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো তৃতীয় ইপিএস বাংলা কোরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতা ও ইফতার মাহফিল। দক্ষিন কোরিয়ার বাংলাদেশী অধ্যুষিত উজম্বু সংউরী মসজিদে স্থানীয় সময় দুপুর সাড়ে ১২ টায় প্রথমে ইপিএস বাংলা কমিউনিটির ধর্ম সম্পাদক রাসেদ সিকদারের কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু হয় কোরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতা।

প্রতিযোগিতায় একমাস আগে থেকেই কোরিয়াতে অবস্থানরত কয়েক দেশের ৬৫ প্রতিযোগি রেজিষ্ট্রেশনের মাধ্যমে প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহন করেন ৷ উল্লেখ্য প্রতিযোগি গন স্বাগতিক কোরিয়া, বাংলাদেশ, ইন্দোনেশিয়া, আফগানিস্তান, পাকিস্তান, কিরগিস্থান,গাম্বিয়া, সেনেগাল, কাজাকিস্তান। বিচারক হিসেবে ছিলেন সংউরী মসজিদের খতীব মাওঃমুফতি নজরুল ইসলাম (বাংলাদেশী),মাওঃনিয়াজ উদ্দিন খতীব থকজং মসজিদ (আফগানিস্তান), মাওঃখালেদ খতীব খোয়াংজু মসজিদ (পাকিস্তান) ৷

প্রথম পর্বে প্রত্যেক প্রতিযোগিকে বিচারক গন ৩ মিনিট করে সুযোগ দেন তাদের পছন্দ অনুযায়ী আয়াত পাঠ করার জন্য, তারপর সেখান থেকে সেড়া দশজন বাছাই করেন।দ্বিতীয় রাউন্ডে তিব্র প্রতিযোগিতা করে টপ টেনে আসা সেরা দশজন প্রতিযোগি প্রথমে বিচারক সিলেক্ট দেওয়া সুরা তেলওয়াত করে এরপর বিচারক গন কোরআনের বিভিন্ন আয়াত সিলেক্ট করে দেন তারপর তেলোওয়াত করতে বলেন সেখান থেকে তিব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে চুড়ান্ত হয় প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ৷ এ বছর প্রথম স্থান অধিকার করেন বাংলাদেশী হাসনাইন আহমেদ, দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেন বাংলাদেশী মুহাম্মদ মুজ্জামেল হক এবং তৃতীয় স্থান অধিকার করেন সেনেগালের দামে সিসে ৷

উল্লেখ্য যে ইপিএস বাংলা কোরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতা ও ইফতার মাহফিলের সহোযোগিতায় ছিলেন ইপিএস বাংলা কমিউনিটির অফিসিয়াল স্পনসর জী এম ই রেমিটেন্স, কাতার এ্যাম্বাসী ও কাতার চ্যারিটী, সুমাইয়া টেক এবং কে এম এফ। প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের পুরুস্কার বিতারন করেন কাতার দূতাবাসের কর্মকর্তা আনোয়ার আদাম,জীএমই রেমিটেন্স বাংলাদেশ মার্কেটিং ম্যানেজার সজীব ও লোন অফিসার কামরুল হাছান রাজ এবং ইপিএস বাংলা কমিউনিটির সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদ সহ মসজীদ কমিটির সভাপতি এম জামন সজল।

পুরুস্কার হিসাবে প্রথম পুরুস্কার ৭ লাখ কোরিয়ান উওন দ্বিতীয় পুরুস্কার ৫ লাখ কোরিয়ান উওন তৃতীয় পুরুস্কার ৩ লাখ কোরিয়ান উওন এছাড়াও টপ টেনের সবাইকে ইপিএস বাংলা কমিউনিটি এবং জীএমই রেমিটেন্সের পক্ষ থেকে স্বান্তনা পুরুস্কার প্রদান করা হয়। পুরুস্কার বিতরনী পর্ব শেষে ইফতার মাহফিলে বিভিন্ন দেশের প্রায় ৭০০ জন একসাথে ইফতার করে।

শান্ত শেখ, প্রবাস কথা, দক্ষিণ কোরিয়া

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.