অভিবাসন এশিয়া মালয়েশিয়া

মালয়েশিয়ায় অভিবাসী কর্মীদের জন্য নতুন বছরের নীতিমালা

শেয়ার করুন

মালয়েশিয়ায় কর্মরত্ব ও নতুন করে নিয়োগ হবে এমন অভিবাসী কর্মীদের জন্য নতুন নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়েছে ৷ সে নীতিমালায় বলা হয়েছে ২০১৮ সালের প্রথম দিন থেকেই নিয়োগকৃত অভিবাসী কর্মীদের ভিসা কর (লেভি) নিয়োগদাতাকে দিতে হবে ৷ এটিকে বাদ্যতামুলক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রণালয় ৷

মন্ত্রণালয় গতকাল বুধবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিৎ করেছে ৷ নতুন এই নীতির বাস্তবায়ন প্রসঙ্গে বলা হয়েছে, সব নিয়োগকর্তারা নতুন কর্মীদের ও কর্মস্থলে নিয়োগকৃত্ব কর্মীদের ভিসা নবায়নের কর(লেভি) এর খরচ বহন করবে ৷

২০১৮ সালে ভিসা নবায়ন করার জন্য ইতিমধ্যে লেভি প্রধান করেছে এমন নিয়োগকর্তাদের ক্ষেত্রেও এ নীতি প্রযোজ্য হবে, এমনকি ওয়ার্ক পার্মিট( ভিসা) চলতি বছরে সক্রিয় আছে এবং ২০১৮ সালে শেষ হয়ে যাবে তাদের ভিসা নবায়নের ক্ষেত্রে এ নীতি প্রয়োগ হবে ৷

মন্ত্রণালয় সূত্র বলছে, বিদেশী কর্মীদের কর পরিশোধের বিষয়ে নির্ধারিত আইন, প্রবিধান বা নীতিমালা পূরণে ব্যর্থ হওয়া নিয়োগকর্তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিবে প্রশাসন ৷

নতুন নীতিমালাতে বিদেশী কর্মীদের ভিসা করের হার অপরিবর্তীত রাখা হয়েছে অর্থ্যৎ পূর্বে আরোপিত উৎপাদন, সেবা ও নির্মাণ খাতের জন্য ১ হাজার ৮০০ রিঙ্গীত এবং কৃষি খাতের জন্য ৬৪০ রিঙ্গীত হার অভিবাসন বিভাগ কর্তৃক নির্ধারিত করা হয়েছে ৷

একি সাথে গৃহকর্মীদের জন্য প্রথম বছরে ৪১০ রিঙ্গীত, দ্বিতীয় বছর, তৃতীয় বছর ও পরবর্তী বছর গুলোতে যথাক্রমে ৫৯০ রিঙ্গীত হারে কর নির্ধারণ করা হয়েছে ৷

এর আগে,কর্মীদের কর নিয়োগকর্তাদের পরিশোধ করতে হবে এ নীতি ২০১৬ সালের মার্চ মাসের ২৫ তারিখ ক্যাবিনেট দ্বারা অনুমোদন করা হয়েছিল এবং এটি ২০১৭ সালের পহেলা জানুয়ারি থেকে কার্যকর করার কথা ছিল ৷

তবে নিয়োগকর্তাদের সংগঠনের সাথে কথা বলে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় চিন্তা করে তা স্থগিত করে দেয় সরকার ৷

মন্ত্রণালয় বলছে যে, এই নীতি মালয়েশিয়ায় বিদেশী কর্মীদের ব্যবস্থাপনার উন্নতির উদ্যেগ যা ১১ মালয়েশিয়া পরিকল্পনার রূপরেখা ৷ একি সাথে নীতিতে নির্ধারণ করা হয়েছে, ২০২০ সালের মধ্যে মালয়েশিয়ায় মোট কর্মসংস্থানের ১৫ শতাংশ হবে বিদেশী কর্মী এবং এ দেশে কম দক্ষ বিদেশী কর্মীদের প্রবেশাধিকারেও নিয়ন্ত্রণ আনা হবে বলে জানিয়েছে মানব সম্পদ মন্ত্রণালয়।

 

  • শাহরিয়ার তারেক, প্রবাস কথা, মালয়েশিয়া
শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.